(ইউপিডিএফ) নিষিদ্ধ করার দাবি করেছে জনসংহতি সমিতি

0
99
(ইউপিডিএফ) নিষিদ্ধ করার দাবি করেছে জনসংহতি সমিতি

পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টকে (ইউপিডিএফ) নিষিদ্ধ করার দাবি করেছে জনসংহতি সমিতি (জেএসএস, এমএন লারমা) ও এর সহযোগী সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)। ইউপিডিএফকে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তিবিরোধী সংগঠন’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে তাঁরা এই দাবি করেন।

আজ রোববার পিসিপির ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় ছাত্র সমাবেশের আয়োজন করে সংগঠনটি। এতে পিসিপির নেতাদের পাশাপাশি জেএসএসের (এমএন লারমা) নেতারাও অংশ নেন। বক্তারা এ সমাবেশে ইউপিডিএফকে নিষিদ্ধসহ বেশ কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন।

সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন, এই চুক্তির বিরোধী সংগঠন হিসেবে ইউপিডিএফকে নিষিদ্ধ ও সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ছয় খুনের বিচারের দাবি জানান।

সমাবেশে বক্তারা ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চুক্তির পর থেকে পাহাড়ে খুন, গুম, অপহরণসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য ইউপিডিএফকে দায়ী করে। ছাত্র সমাবেশ শেষে দুপুরে জেএসএস কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়। পিসিপির ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর স্লোগান ছিল ‘জুম্ম সমাজের বিভেদ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন, পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন ও চলমান সমস্যা উত্তরণে ছাত্রসমাজ ঐক্যবদ্ধ হোন’।

সকাল ১০টায় উপজেলার কলেজ টিলা এলাকায় জেএসএস কার্যালয়ের সামনে পিসিপির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সুমেধ চাকমার সভাপতিত্বে ছাত্র সমাবেশে বক্তব্য দেন জেএসএসের (এমএন লারমা) সাধারণ সম্পাদক তাতিন্দ্র লাল চাকমা, কেন্দ্রীয় যুববিষয়ক সম্পাদক প্রীতিময় চাকমা, জেলা কমিটির তথ্য ও প্রচার সম্পাদক প্রীতি খীসা, জেএসএস সদস্য সমীর চাকমা, সদর উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রানা ত্রিপুরা, পিসিপির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রাজ্যময় চাকমা প্রমুখ।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here