আবাস তৈরি করে দিতে জাতিসংঘের অস্বীকার

0
72
মিয়ানমারের সহিংসতাকবলিত উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে শরণার্থীদের জন্য আবাস তৈরি করে দিতে জাতিসংঘ রাজি হয়েছে বলে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় প্রচারমাধ্যমে প্রকাশিত খবর নাকচ করে দিয়েছে বিশ্ব সংস্থা। গতকাল বৃহস্পতিবার  জাতিসংঘের কর্মকর্তারা ওই খবর প্রত্যাখ্যান করেন।
এর আগে গত বছর সহিংসতায় বাস্তুচ্যুত মুসলিম রোহিঙ্গাদের ‘ক্যাম্প-সদৃশ’ গ্রামে পুনর্বাসনের জন্য মিয়ানমার সরকারের পরিকল্পনার সমালোচনা করে জাতিসংঘ। তারপর থেকেই মিয়ানমার ও জাতিসংঘের মধ্যে সম্পর্কে টানাপড়েন চলছে।
মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় ‘গ্লোবাল নিউ লাইট’ পত্রিকায় ২৬ অক্টোবর প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউএন হ্যাবিটেট রাখাইন গ্রামে বাস্তুচ্যুত লোকজনের জন্য বাসস্থান নির্মাণে প্রযুক্তিগত সহায়তা দিতে রাজি হয়েছে। এতে আরও বলা হয় যে, মিয়ানমারের সামাজিক, সংস্কৃতি ও প্রশাসনিক ব্যবস্থার অনুকূল হবে এমন প্রকল্প বাস্তবায়নে ইউএন হ্যাবিটেট রাজ্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে।
কিন্তু মিয়ানমারে ইউএন হ্যাবিটেট কর্মসূচির সমন্বয়কারী স্ট্যানিস্লাভ সালিং রয়টার্সকে একটি ইমেইলে জানিয়েছেন যে, এখনও পর্যন্ত এরকম কোনও সমঝোতা হয়নি।
সংস্থার প্রতিনিধিরা চলতি সপ্তাহে মিয়ানমার কর্মকর্তাদের সাথে রাজধানী নেপিদোতে একটি বৈঠকে অংশ নিলেও এরকম কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলে তিনি জানান।
জাতিসংঘের নীতিমালা অনুযায়ী, শরণার্থী বা বাস্তুচ্যুত ব্যক্তি যাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে অবৈধভাবে উচ্ছেদ করা হয়েছে, তাদের পূর্বের সম্পত্তি বা জমিতে ফেরার পূর্ণ অধিকার রয়েছে।
– রয়টার্স
image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here