একাদশ সংসদ নির্বাচন বড় চ্যালেঞ্জ

0
62

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সরকারের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। এই নির্বাচনী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় দলীয় নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আজ রোববার নির্বাচনী এলাকা কাজিপুরে বিভিন্ন উন্নয়নকাজ পরিদর্শন শেষে নেতা-কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এসব কথা বলেন। বৈরী আবহাওয়ার কারণে সরকারি সফরসূচি বাতিল করে অনির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এ মতবিনিময় সভা করেন মন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, নির্বাচন ছাড়া সরকার পরিবর্তনের কোনো বিকল্প নেই। তাই বিএনপিসহ নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দলকেই নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে আন্দোলনের হুমকি-ধমকি দিয়ে আওয়ামী লীগকে ভয় দেখানো যাবে না। আওয়ামী লীগ জনগণের দল, কোনো হুমকি-ধমকিতে ভয় পায় না। তিনি বিএনপির উদ্দেশে বলেন, সুপ্রিম কোর্টের ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের পর্যবেক্ষণ ও প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে বিএনপি দেশে নতুন করে ষড়যন্ত্র সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। অতীতের মতো বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জনগণ তাদের এ ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দেবে। নেতা-কর্মীদের সব সময় সজাগ থাকতে হবে। একাদশ সংসদ নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই অনুষ্ঠিত হবে। সংবিধানের বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নাসিম বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সরকারের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এই নির্বাচনী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় দলীয় নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে থাকতে হবে। দলীয় সভানেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশ মেনে কাজ করতে হবে। আওয়ামী লীগ জনগণের দল, জনগণের ভালোবাসা নিয়ে ও মন জয় করে নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে।

কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ সরবরাহসহ অবকাঠামোগত সার্বিক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের উন্নয়ন সমৃদ্ধি ও শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতি বজায় রাখতে হলে দেশ পরিচালনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আরও ১০ বছর সময় দিতে হবে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত করতে জনগণের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

মতবিনিময় সভায় কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত হোসেন, পৌর মেয়র হাজি নিজাম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান, গান্ধাইল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম, যুবলীগের সভাপতি লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়াসহ আওয়ামী লীগ ও তার সব সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে তিনি আমেনা মনসুর ইনস্টিটিউট অব টেক্সটাইল টেকনোলজি, ৫০০ আসনবিশিষ্ট শহীদ এম মনসুর আলী অডিটোরিয়াম, পানি উন্নয়ন বিভাগের নদীপাড়ের তীর সংরক্ষণ এবং চালিতাডাঙ্গায় প্রস্তাবিত ম্যাটস প্রতিষ্ঠানের নির্মাণ স্থান পরিদর্শন করেন। একই সঙ্গে সদ্যসমাপ্ত উদ্বোধনের অপেক্ষায় আইএইচটি ইনস্টিটিউটের ভবনও পরিদর্শন করেন মন্ত্রী।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here