কিশোরগঞ্জে দু’নেতার সমর্থকদের শোডাউনে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোলাগুলি ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া

0
43
কিশোরগঞ্জে দু’নেতার সমর্থকদের শোডাউনে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোলাগুলি ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী দু’নেতার সমর্থকদের শোডাউনে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোলাগুলি ও ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তিন যুবক গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৯ জন আহত হয়েছে। আহতদের প্রথমে কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এদের মধ্যে অনিক (২০) বোরহান (৩০), প্রিথম (৩০), কাউসার (৩২), ইউসুফ (৩০) ও বাচ্চু মিয়া (৪৫) গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। অন্যরা হলেন, মনোনয়নপ্রত্যাশী ড. জায়েদ মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ ও কটিয়াদী পৌরসভার ১নং প্যানেল মেয়র রুহুল আমিন শাকিল (৩৫)।

সোমবার দুপুর আড়াইটার সময় উপজেলার চারিপাড়া গ্রামে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব মহাসড়ক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানায়, সোমবার বিকাল ৩টায় কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল সরকারি কলেজ মাঠে আয়োজিত রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগদান ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ ঘটনা ঘটে।

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী বর্তমান সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিন এবং আওয়ামী লীগ নেতা ড. জায়েদ মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহর কর্মী সমর্থকরা চাড়িপাড়া বাজার এলাকায় অস্ত্র ও লাঠি হাতে মোটরসাইকেল মহড়ায় দেয়।

দু’পক্ষের কর্মী-সমর্থকরা লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া চালানোর একপর্যায়ে ড. জায়েদ ও এমপি সোহরাবের গানম্যান প্রথমে ফায়ার করে। সূত্রমতে, ড. জায়েদের গুলিতে একজন এবং এমপির গানম্যানের গুলিতে পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়। আর এ ঘটনার পর এ দু’পক্ষের মধ্যে চড়ম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা চলে। আর এ সময় নীরব দর্শকের ভূমিকায় দাঁড়িয়ে ছিলেন ক’জন পুলিশ সদস্য। এ ব্যাপারে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে, কটিয়াদী মডেল থানার ওসি জাকির রাব্বানী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here