গজারী বন থেকে এক শিশুর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

0
111
গজারী বন থেকে এক শিশুর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় গজারী বন থেকে এক শিশুর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শিশুর অর্ধগলিত শরীরের বিভিন্ন অংশ উদ্ধারের পর আজ সোমবার দুপুরে শিশুটির মা বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় গতকাল রোববার রাতেই পুলিশ একজনকে আটক করেছে।
নিহত শিশুর নাম রিফাদ (১০)। সে পার্শ্ববর্তী ফুলবাড়িয়া উপজেলার সোয়াতপুর গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। আটক ব্যক্তির নাম নাছির উদ্দিন (২৬)। তিনি ভালুকা উপজেলার বনগাঁও গ্রামের বাসিন্দা।

নিহত শিশুর মা রিনা আক্তারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রিফাদ ৮ জুন ভালুকা উপজেলার বনগাঁও গ্রামের তার নানা শাহাব উদ্দিনের বাড়িতে একাই বেড়াতে যায়। গত রোববার বিকেলে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সেট হাতে নিয়ে খেলতে খেলতে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে সে আর তাদের বাড়িতে যায়নি। নানার বাড়িতেও ফেরেনি। সেই মোবাইলটিও বন্ধ পাওয়া যায়। পরে পরিবারের লোকেরা রাতভর বিভিন্ন জায়গায় ও আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেন। ৯ জুন শিশুটির নানি রেনু ভালুকা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।
রোববার বিকেলে নারাঙ্গী গ্রামের গজারী বনের ভেতরে একটি আমগাছ থেকে আম পাড়তে যায় কয়েকজন শিশু। সেখানে দুর্গন্ধ পায়। পরে পাশেই জঙ্গলের কিছুটা ভেতরের দিকে দেখে একটি বাচ্চার গলিত লাশের অংশবিশেষ পড়ে রয়েছে। পরে শিশুরা বিষয়টি স্থানীয় লোকজনকে জানায়। শাহাব উদ্দিন লাশের অংশবিশেষ দেখে তাঁর নাতি রিফাদের লাশ বলে শনাক্ত করেন। পরে খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশের অংশবিশেষ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাতেই পুলিশ নাছির উদ্দিন নামের একজনকে আটক করে।

ভালুকা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার জানান, এ ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁকে আদালতে পাঠিয়ে রিমান্ড চাওয়া হবে। মোবাইলটি উদ্ধারের জন্য চেষ্টা চলছে।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here