গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় দুই কিশোরী বোনকে অ্যাসিড নিক্ষেপ

0
99
গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় দুই কিশোরী বোনকে অ্যাসিড নিক্ষেপ

ভোলা সদর উপজেলায় গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় দুই কিশোরী বোনকে অ্যাসিড নিক্ষেপ করেছে দুর্বৃত্তরা। এতে তাদের শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে গেছে।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে। অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় আজ মঙ্গলবার দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

গুরুতর অবস্থায় দুই বোনকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অ্যাসিডে দগ্ধ হওয়া দুই বোন হলো তানজিম আক্তার (১৬) ও মোসাম্মদ মারজিয়া (৮)। তাদের বাড়ি উত্তর দিঘলদী গ্রামে। বাবার নাম মো. হেলাল রাঢ়ি।

তানজিম আক্তার চলতি বছর স্থানীয় আবদুল মান্নান মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় এ গ্রেডে উত্তীর্ণ হয়েছে। তার ছোট বোন মারজিয়া দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

ভুক্তভোগীদের স্বজনদের ভাষ্য, গতকাল রাতের খাবার খেয়ে দুই বোন একসঙ্গে ঘুমাতে যায়। দিবাগত রাত দুইটার দিকে ঘরের জানালা দিয়ে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাদের লক্ষ্য করে অ্যাসিড ছুড়ে পালিয়ে যায়। অ্যাসিডে তানজিমের মুখমণ্ডল, দুই চোখসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়। আর মারজিয়ার হাত, পেটসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়। দুই মেয়েকে উদ্ধার করতে গিয়ে তাদের মায়ের হাতেও অ্যাসিড লাগে।

পরিবারের সদস্যরা দুই বোনকে রাতেই ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের আজ দুপুরে ভোলা থেকে বরিশাল পাঠানো হয়।

ভোলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা তৈয়বুর রহমান বলেন, তানজিমের বাঁ চোখের অবস্থা গুরুতর।

ভুক্তভোগী দুই বোনের পরিবারের অভিযোগ, মো. রাজীব নামের এক বখাটে যুবক তানজিমকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। তানজিম এই প্রত্যাখ্যান করে। তাকে মোবাইলে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন রাজীব। তিনিই অ্যাসিড নিক্ষেপ করে থাকতে পারেন বলে পরিবারের সন্দেহ।

ভোলার পুলিশ সুপার মো. মোকতার হোসেন বলেন, এ ঘটনায় আজ সকালে রাজীব ও তাঁর বন্ধু ইউসুফের বাবাকে আটক করা হয়েছে।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here