চার ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার, দুইজন রিমান্ডে

0
118

পাথরঘাটায় তরুণীকে ধর্ষণ ও হত্যার পর কলেজ পুকুরে লাশ লুকিয়ে রাখার অভিযোগে চার ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতারা হলেন- পাথরঘাটা কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি রুহি আনাল দানিয়াল, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ছোট্ট, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহিদুল ইসলাম রায়হান ও উপজেলা ছাত্রলীগ সহ-সম্পাদক মো. মাহমুদ। এ চারজনের মধ্যে রুহি আনাল দানিয়াল ও মো. সাদ্দাম হোসেন ছোট্টকে আদালত সোমবার দু’দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন।

সোমবার বিকালে পাথরঘাটা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. মঞ্জুরুল ইসলাম এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে দুপুর দেড়টার দিকে বরগুনার ডিবি কার্যালয় থেকে দানিয়াল ও সাদ্দামকে স্পিডবোটে করে নিয়ে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পাথরঘাটা থানা পুলিশের ওসি এসএম জিয়াউল হক বলেন, দানিয়াল ও সাদ্দামকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে তাদের দু’দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে চার ছাত্রলীগ নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করার বিষয়টি জেলা ছাত্রলীগকে অবহিত করা হয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জুবায়ের আদনান অনিক বলেন, আটক ছাত্রলীগ নেতারা ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে স্বীকারোক্তি দেয়ার পরপরই আমরা তাদের বহিষ্কারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে চিঠি দেই। কেন্দ্রীয় নেতারা সোমবার দুপুরে ওই চারজনকে সাময়িক বহিষ্কার করে আমাদের চিঠি দেন।

ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৫ : ১০ আগস্ট দুপুরে পাথরঘাটা কলেজের পশ্চিম পাশের পুকুর থেকে অজ্ঞাতনামা এক তরুণীর গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার পর রহস্য উদ্ঘাটনে তদন্ত শুরু করে বরগুনা থানা পুলিশ। পরে তথ্য পেয়ে পাথরঘাটা কলেজের নৈশপ্রহরী জাহাঙ্গীর হোসেনকে শুক্রবার গভীর রাতে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদে নেয় ডিবি পুলিশ। জাহাঙ্গীরের দেয়া তথ্য অনুযায়ী শনিবার রাতে ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদ ও রায়হানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। রোববার বিকালে পাথরঘাটার আদালতে মাহমুদ ও রায়হানের ১৬৪ ধারায় দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গ্রেফতার করা হয় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি রুহি আনাল দানিয়াল ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ছোট্টকে।

পুলিশ সুপার বিজয় বসাক জানান, এখনও পর্যন্ত ওই তরুণীর পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে দানিয়াল ও সাদ্দামকে জিজ্ঞাসাবাদের মধ্য দিয়ে তরুণীর পরিচয় পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন তিনি। মাহমুদ ও রায়হান এ হত্যাকাণ্ড এবং লাশ পুকুরে লুকানোর সঙ্গে জড়িত ছিল। এ মর্মে তারা আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে বলেও পুলিশ সুপার জানান।

শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন : অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে পাথরঘাটায় মানববন্ধন করেছে একাধিক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। বরগুনা জেলা সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের উদ্যোগে সোমবার দুপুরে বরগুনা প্রেস ক্লাব চত্বরে এ প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তৃতা করেন- সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের বরগুনা জেলা সভাপতি সোহেলী পারভিন ছবি, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুর রশীদ, বরগুনা প্রেস ক্লাব সভাপতি মো. জাকির হোসেন মিরাজ প্রমুখ।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here