জোড়া সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ৪৮২ রান সংগ্রহ করেছে পাকিস্তান

0
70
জোড়া সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ৪৮২ রান সংগ্রহ করেছে পাকিস্তান

মোহাম্মদ হাফিজ এবং হারিস সোহেলের জোড়া সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ৪৮২ রান সংগ্রহ করেছে পাকিস্তান। জবাবে দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকালে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৩০ রান সংগ্রহ করেছে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

সোমবার আগের দিনের করা ৩ উইকেটের ২৫৫ রান নিয়ে ফের ব্যাটিংয়ে নামে পাকিস্তান। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগের দিনের করা ১৫ রান নিয়ে ফের ব্যাট করতে নামেন হারিস সোহেল।

দিনের শুরুতেই উইকেট হারান মোহাম্মদ আব্বাস। তার বিদায়ে আরও বেশি দায়িত্বশীল হয়ে খেলেন পাকিস্তানের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হারিস সোহেল। ছয়ে ব্যাটিংয়ে নামা আসাদ শফিককে সঙ্গে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে ১৫০ রানের জুটি গড়েন হারিস।

দুর্দান্ত খেলতে থাকা আসাদ শফিক এবং হারিস সোহেল দুজনই সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন। আগের বলেই স্কয়ার লেগের ওপর দিয়ে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জুটিতে ১৫০ রান পূর্ণ করেন শফিক।

এরপর সময়ের ব্যবধানে উইকেট হারাতে থাকে পাকিস্তান। দুবাই টেস্টের মধ্য দিয়ে অস্ট্রেলিয়া দলে অভিষেক হওয়া মার্নাস লাবাসচাগনে লেগ স্পিনের শিকার হওয়ার আগে ১৬৫ বলে ৯ চার ও এক ছক্কায় ৮০ রান করেন আসাদ শফিক।

ব্যাটিংয়ে নেমেই রান আউট হয়ে ফেরেন বাবর আজম। জন হোলডনের করা বলটিকে থার্ডম্যান অঞ্চলে ঠেলে দিয়ে দুই রান আদায় করে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন হারিস সোহেল। ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ টেস্ট খেলতে নেমে সেঞ্চুরি করার পর বেশি দূর এগোতে পারেননি সোহেল। নাথান লায়নের ঘূর্ণি বলে বিভ্রান্ত হওয়ার আগে ২৪০ বলে আট চার ও দুই ছক্কায় ১১০ রান করে ফেরেন হারিস সোহেল।

সাম্প্রতিক সময়ে অফ ফর্মে থাকা পাকিস্তান দলের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ, এদিন ব্যাটিং নেমেই ক্যাচ তুলে দেন। মার্নাস লাবাসচাগনের বলে ফার্স্ট স্লিপে ক্যাচ তুলে দিয়ে বেঁচে যান সরফরাজ। মাত্র ৮ রানে নতুন জীবন পাওয়া সরফরাজ ১৫ রান করে রান আউট হয়ে ফেরেন। এরপর বিলাওয়াল আসিফ এবং ইয়াসির শাহরা দ্রুত বিদায় নিলে ৪৮২ রানে অলআউট হয়ে যায় পাকিস্তান।

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৪৮২/১০ (হাফিজ ১২৬, হারিস ১১০, আসাদ ৮০, ইমাম-উল ৭৬; পিটার সিডল ৩/৫৮, নাথান লায়ন ২/১১৪)।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here