ডিবি পুলিশের আরো দুই সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

0
81
ডিবি পুলিশের আরো দুই সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

বেসরকারি টিভি চ্যানেল ডিবিসি নিউজের ক্যামেরাপারসন সুমন হাসানকে নির্যাতনের ঘটনায় ডিবি পুলিশের আরো দুই সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ৮টায় বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার এস এম রুহুল আমিনের নির্দেশে তাঁদের বরখাস্ত করা হয়।

বরখাস্তকৃত দুই কনস্টেবল হলেন মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের কনস্টেবল রহিম ও কনস্টেবল রাসেল। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে কনস্টেবল মাসুদুল হক মাসুদকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। তবে ডিবি পুলিশের ওই দলটির নেতৃত্বে থাকা এসআই আবুল বাশারকে এখনো বরখাস্ত করা হয়নি।

গত বুধবার দুপুরে নগরীর বিউটি হল এলাকায় কথিত মাদকবিরোধী অভিযানের সময়ে ডিবি পুলিশের একটি দলের বিরুদ্ধে ডিবিসি নিউজের ক্যামেরাপারসন সুমন হাসানকে নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ওই রাতে পুলিশ কমিশনার তিন সদস্যর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। এ কমিটি বৃহস্পতিবার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। তদন্ত কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে ওই দুই সদস্যকে সায়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে অন্য কনস্টবেল মাসুদুল হক মাসুদকে বহিষ্কার করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, গত বুধবার দুপুরে নগরীর বিউটি হল এলাকায় ডিবি পুলিশ কথিত মাদকবিরোধী অভিযানে যায়। অভিযানের তথ্য সংগ্রহের জন্য ডিবিসি নিউজের ক্যামেরাপারসন সুমন হাসান ঘটনাস্থলে গেলে ডিবি পুলিশের এসআইয়ের সঙ্গে বাগিবতণ্ডা হয়। এর এক পর্যায়ে সুমনকে পুলিশ সদস্যরা মারধর করেন এবং টেনেহিঁচড়ে পুলিশ পিকআপে উঠিয়ে নির্যাতন চালান। পরে ডিবি পুলিশের কার্যলয়ে নিয়ে তৃতীয় দফা নির্যাতন চালানো হয়। খবর পেয়ে বরিশালে কর্তব্যরত সাংবাদিকরা ডিবি কার্যালয়ে গিয়ে সুমনকে উদ্ধার করে শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান। এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই অভিযানের দলে থাকা পুলিশের আট সদস্যকে ডিবি কার্যালয় থেকে প্রত্যাহার করে লাইনে নেওয়া হয়। পরদিন বৃহস্পতিবার ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত পুলিশ কনস্টেবল মাকসুদুল হক মাসুকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here