ডিমলায় দুম্বার মাংস ব্যাপক অনিয়মভাবে বিতরণের অভিযোগ

0
75
ডিমলায় দুম্বার মাংস ব্যাপক অনিয়মভাবে বিতরণের অভিযোগ

মোঃ জাহিদুল ইসলাম, ডিমলা(নীলফামারী) প্রতিনিধি:
প্রতি বছরের ন্যায় এবারো গরীব-দুখী, দুস্থ,অসহায় এতিমদের জন্য সৌদি আরব থেকে পাওয়া কোরবানীর মাংস (দুম্বার) জেলা ইসলামী ফাউন্ডশনের পাঠানো ২৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস কর্তৃক উঠেছে। নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক বেশ কিছু গরীব দুস্থ অসহায় অভিযোগ করে বলেছেন আমরা গত দুই-তিন বছর কয়েক টুকরা করে হলেও দুম্বার মাংস পেয়ে পরিবারের সকলে মিলে একটু করে খেয়েছিলাম, কিন্তু এ বছর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা দায়িত্বে না থাকায় ওই অফিসের সাবএসিস্টেন ইঞ্জিনিয়ার পদে থাকা ফেরদৌস আলম উপজেলা প্রশাসনের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করে ব্যাপক অনিয়ম করে দুম্বার মাংস বিতরণ করেছেন। সৌদি আরব থেকে আসা দুম্বার মাংস প্রকৃত পক্ষে আসলে কার পাওয়ার কথা আর এ মাংস পাচ্ছে কে, খাচ্ছে কে ? বিতরণ বিষয়ে ফেরদৌস আলমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন এ বছর মাত্র ১৯৮ প্যাকেট করা মাংস এসেছে তাই সবাইকে দিতে পারি নাই, শুধু উপজেলার ১০ ইউনিয়ন পরিষদে নিজে গিয়ে পৌছে দিয়েছি আর কিছু তালিকা অনুপাতে দেয়া হয়েছে। গরীব দুঃখীর মধ্যে দুজন মানুষ আসাদুল ও আবুকালাম বলেন গত বছর এবারের গোস্তর চেয়ে কম গোস্ত এসেছিল তারপরও আমরা সকলেই পেয়েছিলাম। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ নাজমুন নাহার ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (অতিরিক্ত) মোয়াজ্জেম হোসেনের সাথে মুঠো ফোনে বার-বার চেষ্ঠা করতে চাইলে একবারো ফোন রিসিব করেন না। উক্ত দুম্বার মাংস অনিয়ম ভাবে বিতরণের সময় সাথে ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সহকারী বাবু কৃষ্ণ কান্ত রায় ও প্রফুল্ল রায় (গোবরা)। অসহায় গরীব দুঃখী মানুষদের জন্য আসা দুম্বার মাংস যে কিনা অনিয়মভাবে বিতরণ করতে পারে, সে ওই অফিসের কি রখোম দুর্নীতি করতে পারে ? সেটি খুব ভাল করে বুঝা যায় বলে দাবী করেছেন দুম্বার মাংসের জন্য অপেক্ষামান অসহায় গরীব দুঃখী মানুষরা। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে দ্রুত তারা দাবী করেন অবিলম্বে ফেরদৌস আলমের অপসারন।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here