নভেম্বরেই ২৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যোগ হবে জাতীয় গ্রিডে

0
185

জ্বালানি, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, আগামী নভেম্বরের মাঝামাঝি দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রে থেকে আরো ২৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে। এতে করে উত্তরাঞ্চলের বিদ্যুতের যে ঘাটতি তা পূরণ হবে। শুক্রবার সকালে দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই প্রকল্পটি ২০১৫ সালে শুরু করা হয়েছিল। যা সম্পন্ন করে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কথা ছিল ২০১৮ সালের জুলাই মাসের দিকে। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ের অনেক আগেই এখান থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হবে। এখানে নিজস্ব কয়লা ব্যবহার করে খুব অল্প খরচে বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে।

তিনি বলেন, এছাড়া ভেড়ামারায় আরও ৫শ’ মেগাওয়াট ও সৈয়দপুরে দেড়শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র করতে যাচ্ছে সরকার। যাতে করে এই অঞ্চলে কোনোভাবেই বিদ্যুতের ঘাটতি থাকবে না।

এর আগে তিনি তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্মকর্তা, চীনা কর্মকর্তা ও প্রকল্প কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ, প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল হাকিম সরকার, প্রকল্প পরিচালক চৌধুরী নুরুজ্জামান, প্রকল্পের প্রধান পরামর্শক (চীফ কনসালটেন্ট) শান্তানু চৌধুরীসহ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

২৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রধান পরামর্শক (চিফ কনসালটেন্ট) শান্তানু চৌধুরী জানান, বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজ প্রায় শেষের দিকে। মোট ৩৩টি ধাপের মধ্যে প্রায় ২৭টি ধাপ সম্পন্ন করা হয়েছে। এসবের কাজ আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই সম্পন্ন হবে। আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে নতুন এই প্রকল্প থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হবে। যাতে করে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে ২৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

তিনি বলেন, নতুন প্রকল্পের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩০০ মেগাওয়াট। এই প্রকল্পটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে করে কোনোভাবেই ২৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুতের কম বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে না।

উল্লেখ্য, দিনাজপুরে কয়লাভিত্তিক ২৫০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র ছিল। নতুন প্রকল্প থেকে আগামী নভেম্বরে ২৭৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হলে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে ৫২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here