পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে যুবক নিহত হয়েছেন।

0
41
পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে যুবক নিহত হয়েছেন।

ফেনীর দাগনভূঁঞায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মুসা আলম ওরফে মাসুদ (৩২) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। পুলিশের ভাষ্য, নিহত মাসুদ (৩২) সন্ত্রাসী ছিলেন। ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনায় পুলিশের একজন উপপরিদর্শক (এসআই) ও একজন সহকারী উপপরিদর্শকসহ (এএসআই) চারজন আহত।

গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার জয়লষ্কর ইউনিয়নের খুশীপুর ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে তিনটি গুলিসহ একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়।

নিহত মাসুদ উপজেলার জয়লষ্কর ইউনিয়নের খুশীপুর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে।

দাগনভূঁঞা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, গত মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মুসা আলম ওরফে মাসুদকে গ্রেপ্তার করে। রাতে তাঁকে নিয়ে ছুট্টু নামে তাঁর এক সহযোগীকে ধরতে পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাসুদের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে দুই পক্ষের বন্দুকযুদ্ধ শুরু হরে একপর্যায়ে গুলিবিদ্ধ হয় মাসুদ। আহত মাসুদকে দাগনভূঁঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।
বন্দুকযুদ্ধের সময় দাগনভূঁঞা থানা-পুলিশের এসআই আবদুর রহিম, এএসআই মো. ইসমাইল ও অপর দুই কনস্টেবল আহত হন।

ওসির তথ্যমতে, নিহত মাসুদের বিরুদ্ধে দাগনভূঁঞা থানায় প্রতিবন্ধী স্কুলছাত্রী ও একজন গৃহবধূসহ দুটি ধর্ষণ, দুটি ডাকাতি ও হত্যা মামলাসহ মোট ছয়টি মামলা রয়েছে। পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে লাশ প্রথমে থানায় নিয়ে যায়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ফেনী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য যোগাযোগের চেষ্টা করে নিহত ব্যক্তির পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here