বঙ্গোপসাগরের মাছ ধরার ইঞ্জিনচালিত ১১টি নৌকা ডুবে গেছে।

0
111
বঙ্গোপসাগরের মাছ ধরার ইঞ্জিনচালিত ১১টি নৌকা ডুবে গেছে।

কক্সবাজারের মহেশখালীতে বঙ্গোপসাগরের চৌফলদন্ডি চ্যানেলে ঝোড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে বঙ্গোপসাগরের মাছ ধরার ইঞ্জিনচালিত ১১টি নৌকা ডুবে গেছে। নৌকায় থাকা জেলেদের মধ্যে ২৪ জনকে উদ্ধার করা গেলেও একজন মারা গেছেন। নিখোঁজ রয়েছেন ছয়জন।

নৌকাগুলোর জেলেরা বঙ্গোপসাগরের মহেশখালীর সোনাদিয়া উপকূলে মাছ ধরছিল। প্রাকৃতিক দুর্যোগের সংকেত পেয়ে জেলেরা নৌকাগুলো নিয়ে চৌফলদন্ডি ঘাটের দিকে ফিরছিলেন।

নিহত জেলের নাম আবদুস শুক্কুর (৩৫)। তিনি চৌফলদন্ডি ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। এর মধ্যে পাঁচজনকে দুপুরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নোমান হোসেন বলেন, লঘুচাপ সৃষ্টির প্রভাবে বঙ্গোপসাগর উত্তাল হয়ে পড়েছে। আজ সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মহেশখালী উপকূলে প্রবল গতিবেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে গেছে। এই ঝোড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে চৌফলদন্ডি চ্যানেলে ১১টি মাছ ধরার ছোট ট্রলার ডুবে গেছে। প্রতিটি নৌকায় পাঁচ-ছয়জন করে জেলে ছিলেন। এর মধ্যে আবদুস শুক্কুর নামের এক জেলের মৃতদেহ উদ্ধার হলেও একটি ট্রলারসহ চৌফলদন্ডি এলাকার ছয় জেলে নিখোঁজ রয়েছেন।

ইউএনও বলেন, নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারে সাগরে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী বলেন, দুপুরে ট্রলারডুবিতে আহত কয়েকজন জেলেকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাঁদের হাত-পায়ে আঘাতের জখম রয়েছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি ফরিদ উদ্দিন খন্দকার বলেন, ডুবে যাওয়া ১১ নৌকার মধ্যে ১০টি উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ ছয় জেলেসহ আরেকটি নৌকা উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। নিহত জেলের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলেদের বরাত দিয়ে কক্সবাজার জেলা বোট মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহামদ বলেন, আজ রোববার ভোরের দিকে সাগর উপকূলে বৃষ্টির সঙ্গে আকস্মিক ঝোড়ো হাওয়া সৃষ্টি হলে বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার উপকূলের হিমছড়ি, কলাতলী, মহেশখালীতে আরও কয়েকটি নৌকা ডুবে গেছে। এসব নৌকার অধিকাংশ জেলে সাঁতরে কূলে ফিরে আসতে সক্ষম হলেও কয়েকজনের সন্ধান মিলছে না। এখনো সাগরে শতাধিক নৌকা রয়েছে। নৌকার জেলেদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁদের দ্রুত কূলে ফিরে আসতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

কোস্টগার্ড কক্সবাজার স্টেশনের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার আকিরুল হাসান বলেন, ‘মহেশখালী চ্যানেলের পশ্চিমে কবুতর চর এলাকায় দুটি বোট ভেঙে যাওয়ার খবর আমরা পেয়েছি। সেখান থেকে কোস্টগার্ড সদস্যরা চারজন জেলেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিখোঁজ জেলেদের ব্যাপারে অনুসন্ধান চলছে।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here