শিশুকে চাকায় পিষে ছুটে গেল মন্ত্রীর গাড়িবহর

0
63

ভারতের উত্তর প্রদেশে জ্যেষ্ঠ এক মন্ত্রীর গাড়িবহরের ধাক্কায় শিব গোস্বামী নামের পাঁচ বছর বয়সী এক শিশু নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ রোববার এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল শনিবার রাতে রাজ্যের গোণ্ডা জেলার কলোনেলগঞ্জ ও পরশপুরের সংযোগ সড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল কলোনেলগঞ্জ ও পরশপুরের সংযোগ সড়কের পাশে মা ও দাদির সঙ্গে বসে খেলছিল শিশু শিব। রাজ্যের পিছিয়ে পড়া শ্রেণি ও প্রতিবন্ধী মানুষের উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী ওমপ্রকাশ রাজভরের একটি গাড়িবহর ওই সড়ক দিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় মন্ত্রীর গাড়িবহরের একটি গাড়ি শিবকে ধাক্কা মারলে ঘটনাস্থলে সে মারা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহত শিবের বাবা বিশ্বনাথের অভিযোগ, ধাক্কা দেওয়ার পর শিবকে বাঁচাতে মন্ত্রীর গাড়িবহর এক মুহূর্তও অপেক্ষা করেনি। বরং ঘটনার পর দ্রুত ওই এলাকা ছেড়ে গেছে গাড়িবহর। ওই গাড়িবহরের একটি গাড়িতে মন্ত্রী ওমপ্রকাশ রাজভর ছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ঘটনায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এ ছাড়া নিহত শিশুর পরিবারকে পাঁচ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

বিশ্বনাথ বলেন, ‘মন্ত্রীর গাড়িবহরের ধাক্কায় শিব পড়ে যায়। এ সময় মন্ত্রীর গাড়ির গতি বেড়ে যায়। কিছু দূর গিয়ে গাড়ি একটু থামালে আবার দ্রুত এলাকা ত্যাগ করে তাঁরা।’

উত্তর প্রদেশে ক্ষমতাসীন বিজেপির জোট সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টির প্রধান ও আদিত্যনাথের মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী ওমপ্রকাশ রাজভর বলেছেন, ঘটনার সময় তিনি অন্য একটি গাড়িতে ২৫ কিলোমিটার দূরে ছিলেন। তাই দুর্ঘটনার বিষয়টি তিনি তখনো জানতেন না।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, পুলিশ সময়মতো ঘটনাস্থলে যায়নি। এ কারণে তাঁরা শিবের মরদেহ ঘণ্টাখানেক রাস্তায় রেখে সড়ক অবরোধ করেন। পরে পুলিশ গিয়ে রাস্তা থেকে সবাইকে সরে যেত বাধ্য করে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী বেশ কিছু এলাকায় আগুন ধরিয়ে দেয়।

গোণ্ডা জেলার ম্যাজিস্ট্রেট জে বি সিং বলেন, শিশুটির বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে বেপরোয়া গাড়ি চালানোর কারণে আপাতত অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সে সময় ওই গাড়ির চালক কে ছিলেন তা জানতে চেষ্টা করছে পুলিশ। এ বিষয়ে কোনো মহল থেকে চাপ নেই। সঠিক আইন মেনেই পুলিশ তাদের কাজ করবে।

সম্প্রতি এক সমাবেশে মন্ত্রী ওমপ্রকাশ হুমকি দিয়ে বলেছেন, যে মা-বাবা সন্তানদের স্কুলে পাঠাবেন না, তাঁদের থানায় খাবার ও পানি ছাড়া আটকে রাখা হবে। ওমপ্রকাশের বক্তব্যের এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

কয়েক দিন আগে উত্তর প্রদেশের কারা-প্রতিমন্ত্রী জয় কুমার সিং জালাউয়ের গাড়িবহর বান্ডেলখান্ড গ্রামে এক কৃষকের ফসল ধ্বংস করে খেতের ভেতর দিয়ে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে । এ ঘটনায় ক্ষতিপূরণ হিসেবে দেবেন্দ্র দোহরি নামের ওই কৃষককে চার হাজার রুপিও দেওয়া হয়।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here