বাস্তবতার নিরিখে এখনই সরকারি চাকরিতে কোটা একেবারে বাতিল করা ঠিক হবে না

0
29

সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিল, সংরক্ষণ বা সংস্কারের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠনের প্রস্তাব করা হলেও আনুষ্ঠানিকভাবে সেই কমিটি এখনো করা হয়নি। ফলে এ বিষয়ে কাজও শুরু করা যাচ্ছে না। দেড় মাস আগে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কোটা বিষয়ে কমিটি গঠনের জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছিল।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, বাস্তবতার নিরিখে এখনই সরকারি চাকরিতে কোটা একেবারে বাতিল করা ঠিক হবে না। এটি বাতিল হলে কোটার সুবিধাভোগী বিভিন্ন পক্ষ আদালতে মামলা করতে পারে। তবে কোটার বিষয়ে ‘কিছু একটা’ হবে। সেই কিছুটা কী, তা এখনই বলতে পারছেন না তাঁরা। গতকাল রোববার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে এসব বিষয় জানা গেছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম প্রথম আলোকে বলেন, কোটা নিয়ে তাঁর কাছে কোনো সংবাদ নেই। কমিটিও তাঁর কাছে পৌঁছেনি।

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে বর্তমানে ৫৫ শতাংশ নিয়োগ হয় অগ্রাধিকার কোটায়। বাকি ৪৫ শতাংশ নিয়োগ হয় মেধা কোটায়। তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির চাকরিতেও আছে বিভিন্ন ধরনের কোটা। সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছেন। আন্দোলনের একপর্যায়ে গত মার্চ মাসে পুলিশ আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা করে। পরে গত ৮ এপ্রিল ঢাকার শাহবাগে আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ লাঠিপেটা করলে এবং কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়ে মারলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। ঘটনার পরদিন এই আন্দোলন সারা দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ছড়িয়ে পড়ে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা বাতিলের ঘোষণা দেন।

কোটা সংস্কার নিয়ে সরকারি কোনো প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়ায় গত শনিবার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তাঁদের অবস্থান জানাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছিলেন। সংবাদ সম্মেলন শুরু হওয়ার আগে ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মী কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালায়।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, এখন পর্যন্ত কোটা নিয়ে সরকারি কোনো কমিটি গঠন করা হয়নি। এই মন্ত্রণালয়ের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, ‘কমিটি হলে তো আপনারা জানতেনই।’

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here