বিএনপি ৭ নভেম্বর ঢাকায় সমাবেশ করতে চায়

0
168

জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে আগামী ৭ নভেম্বর ঢাকায় সমাবেশ করতে চায় বিএনপি। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অথবা নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়ে সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে শিগগিরই আবেদন করবে দলটি। অনুমতি পেলে সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এ ছাড়া তিনি আগামী রোববার কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের শিবির পরিদর্শনে যাবেন।

সোমবার রাতে গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বিএনপির আগামী দিনের বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে ২৯ অক্টোবর রোববার দলের চেয়ারপারসন রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। একই সঙ্গে ৭ নভেম্বর দলের জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে ঢাকায় সমাবেশ করার ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত হয়। ওই দিন ঢাকায় বড় শোডাউন করতে চায় বিএনপি।

বৈঠকের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানোর কথা ছিল। দলের স্থায়ী কমিটির প্রবীণ সদস্য এম কে আনোয়ার মৃত্যুবরণ করায় সংবাদ সম্মেলন কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। পরে স্থায়ী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্তের বিষয়গুলো সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়।

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিয়ে নিজেদের দেশে সসম্মানে ফেরত পাঠাতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলোকে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারকে সম্ভাব্য উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়। এ ছাড়া সভায় সম্প্রতি চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য বৃদ্ধিতে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে সম্প্রতি দেশের উত্তরাঞ্চলসহ কয়েকটি জেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের প্রতি সমবেদনা এবং প্রয়োজনীয় ত্রাণ সরবরাহের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। একই সঙ্গে দেশজুড়ে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ও গুম-খুন বৃদ্ধির ঘটনায় নিন্দা এবং নিখোঁজ নেতাকর্মীদের অবিলম্বে তাদের পরিবারের কাছে ফেরত দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, তরিকুল ইসলাম, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

গত ১৮ অক্টোবর খালেদা জিয়া লন্ডন থেকে দেশে ফিরেছেন। তিন মাস আগে ১৫ জুলাই চিকিৎসার জন্য তিনি লন্ডন যান।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here