বি.বাড়িয়ার চার গ্রাম গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য

0
102

জমি নিয়ে বিরোধ কিংবা কথা কাটাকাটি। সামান্য ঘটনায় ভয়াবহ রক্তপাত। দেশীয় তৈরি অস্ত্র টেঁটা-বল্লমের প্রদর্শনী। মাইকিং করে লোক জড়ো করে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা। কখনও এসব দৃশ্য হার মানায় সিনেমাকেও। কিছুদিন পরপরই এমন দৃশ্যের মঞ্চায়ন হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। মামলার পর গ্রেফতার আতঙ্কে অনেক সময় পুরুষশূন্য গ্রামের পর গ্রাম। এরকমই একটি ঘটনায় এখন ঘরছাড়া, জেলার নবীনগর উপজেলার চারটি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ। : কখনও তুচ্ছ ঘটনা, কখনো দলীয় কোন্দল। পান থেকে চুন খসলেই মুখোমুখি দুপক্ষ। চলে দেশীয় অস্ত্রের মহড়া। আছে প্রতিপক্ষকে ঘায়েলের নানা কৌশল। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এই দৃশ্য এখন মোটামুটি সবারই পরিচিত। সম্প্রতি মোবাইল ফোনে ইন্টারনেটভিত্তিক যোগাযোগমাধ্যম, হোয়াসট অ্যাপে আহবান জানিয়ে সংঘর্ষে জড়ায় দু’পক্ষ। যেখানে বলা হয়, পুলিশের উপস্থিতিতেই ঘটবে সব। : এরপর সংঘর্ষ। আহত অনেকে। ভাঙচুর করা হয় ঘরবাড়ি। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে দুটিসহ মামলা হয় ৮টি। যেখানে আসামি কয়েক শো। এখন  গ্রেফতার আতঙ্কে ঘরছাড়া থানাকান্দি, হাজির হাটি, সাতঘরহাটি ও গৌরনগর গ্রামের কয়েক হাজার পুরুষ।  শুধু তাই নয়, প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মামলার আসামি হয়েছেন ৩ কিলোমিটার দূরের কয়েক গ্রামের বাসিন্দারাও। : এদিকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপস্থিতিতে সংঘর্ষের কথা মানতে নারাজ পুলিশ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এসব সংঘর্ষ, বিশেষ করে পুলিশের উপস্থিতিতে মারামারি এবং গ্রেফতার আতঙ্কে মানুষের ঘরছাড়া হওয়ার বিষয়ে, ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি জেলা পুলিশ সুপার।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here