রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টি কর্মে শিলাইদহের প্রভাব ছিল অপরিসীম।

0
79
রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টি কর্মে শিলাইদহের প্রভাব ছিল অপরিসীম।
বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান বলেছেন, রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টি কর্মে শিলাইদহের প্রভাব ছিল অপরিসীম। যে পূর্ব বঙ্গে না এলে হয়তো রবীন্দ্রনাথের জীবন ঘেষা সাহিত্য কর্মের এমন বিকাশ হতো না। জমিদার হিসেবে তিনি কৃষক প্রজাদের দুঃখ দুর্দশা ঘুরে ঘুরে দেখেছেন। সেই অভিজ্ঞতার প্রতিফলন তার ছোট গল্প, কবিতা ও চিঠিতে গভীরভাবে প্রকাশ পেয়েছে। পাশাপাশি এই প্রজাদের ভাগ্য উন্নয়নে তিনি আধুনিক চাষবাস, উন্নত গাভী পরিপালন, কুটির শিল্প, গ্রামীণ সমবায় ব্যাংক স্থাপনসহ নানমূখী উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তিনি জমিদার নয় প্রজাদের ট্রাস্টি হিসেবে পরিচিত হতে বেশি পছন্দ করতেন। পদ্মা, চলন বিল, গড়াই নদীর দুই পাশের গ্রামগুলোর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, নারীর জীবনের নানা কষ্ট এবং কৃষকদের দারিদ্র্যের বিষয়গুলো অনায়াসে তার সৃষ্টিশীল কর্মে স্থান করে নিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে স্থানীয় সময় শনিবার বিকালে মুক্তধারা ফাউন্ডেশন আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
হাসান ফেরদৌসের সঞ্চালনায় তিনি আরও বলেছেন, গ্রাম বাংলার উন্নয়নের জন্য তিনি কৃষকদের আত্মশক্তিতে বিশ্বাসী হতে বলেছেন এবং তাদের সন্তানদের শিক্ষার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। বাইরের শক্তিকে দোষ না দিয়ে তিনি মনের আবর্জনা দূর করার আহ্বান জানান।রবীন্দ্রনাথের এইসব মানবিক চিন্তাকে বাংলাদেশের অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নের বড় উপকরণ করার সুযোগ রয়েছে বলে ড. আতিউর রহমান মত প্রকাশ করেন। বাংলাদেশ ব্যাংক তার আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কৌশল গ্রহণ করার সময় রবীন্দ্রনাথের এই সব মানবিক চিন্তাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েছে বলে তিনি জানান।
সবশেষে তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথ আমাদের নিত্য সঙ্গী এবং আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বরাবরই রবীন্দ্র ভাবনাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতেন। তাই, বাঙালির আগামী দিনের পথচলা এই দুই শ্রেষ্ঠ বাঙালি সর্বক্ষণ তাদের পাশে থাকবেন বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।
image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here