লোকসানে জর্জরিত দুর্বল মৌলভিত্তির কোম্পানি অলটেক্স

0
44
লোকসানে জর্জরিত দুর্বল মৌলভিত্তির কোম্পানি অলটেক্স

লোকসানে জর্জরিত দুর্বল মৌলভিত্তির কোম্পানি অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের শেয়ারের দাম কোনো কারণ ছাড়াই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম গত দুই দিনে প্রায় সোয়া দুই টাকা বেড়েছে। এর মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার এক দিনেই বেড়েছে ১ টাকা ২০ পয়সা বা প্রায় ১০ শতাংশ। অস্বাভাবিক এ মূল্যবৃদ্ধিতে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ১৪ টাকায়।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, ‘জেড’ শ্রেণির লোকসানে জর্জরিত এই কোম্পানি টিকে আছে নামমাত্র। অথচ বাজারে এটির শেয়ারের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি ঘটছে। তাই এর পেছনে কারসাজি রয়েছে।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, গত সোমবার অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ তাদের গত অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেখানে আগের বছরের চেয়ে কোম্পানিটির লোকসানের পরিমাণ কয়েক গুণ বেড়েছে। গত অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ৮৮ পয়সা ঋণাত্মক। ২০১৬ সালের একই সময়ে লোকসানের পরিমাণ ছিল ৩৮ পয়সা। সেই হিসাবে আগের বছরের চেয়ে গত অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি লোকসান দেড় টাকা বেড়েছে। তা সত্ত্বেও দুই দিন ধরে এটির শেয়ারের দাম বেড়েছে।

১৯৯৬ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক চট্টগ্রামের চন্দনাইশের আওয়ামী লীগের নেতা আফসার উদ্দিন আহমেদ। কোম্পানির পক্ষ থেকে গত নভেম্বরে জানানো হয়েছে, গ্যাস-সংকটে কোম্পানির উৎপাদন কার্যক্রম প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। যার প্রভাব পড়েছে কোম্পানির আয়ে। কিন্তু সাম্প্রতিক মূল্যবৃদ্ধি কোম্পানির বাস্তব অবস্থার পুরোপুরি বিপরীত।

এদিকে চতুর্থ প্রজন্ম বা ফোর-জি টেলিযোগাযোগ সেবা চালুর জন্য তরঙ্গ নিলামের খবরে গতকালও ঢাকার বাজারে বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্‌লসের শেয়ারের দাম বেড়েছে। এদিন কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম ২ টাকা ৭০ পয়সা বা প্রায় আড়াই শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০৫ টাকা ৫০ পয়সায়। খাতসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, ফোর-জি সেবা চালু হলে তাতে ব্যান্ডউইটথের ব্যবহার বাড়বে। তাতে সাবমেরিনের ব্যবসা বাড়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। এতে কোম্পানিটির শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ তৈরি হয়েছে।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৮৮ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫০৪ কোটি টাকার, যা আগের দিনের চেয়ে ১৭ কোটি টাকা বেশি। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচকটি গতকাল ২৯ পয়েন্ট বেড়েছে। সেখানে লেনদেন হয় ৩৫ কোটি টাকার, যা আগের দিনের চেয়ে ১৫ কোটি টাকা বেশি।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here