হবিগঞ্জে মাছ বিক্রি নিয়ে ভয়াবহ সংর্ঘষ

0
46

মাছ বিক্রি সংক্রান্ত সৃষ্ট ঝামেলাকে কেন্দ্র করে গতকাল দুপুরে হবিগঞ্জ সদর উপজেলাধীন বেকিটেকা গ্রামে দু’দল লোকের মধ্যে ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষে আহত হয়েছে নারী সহ অন্তত পৌনে দু’শতাধিক মানুষ। তন্মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় নায়েব আলী, সৈয়দ হোসেন, আমির আলী, সায়েদ মিয়া, মর্তুজ মিয়া, জব্বার মিয়া, বেলাল, জাহির, রমহান, গুলচান বিবি, ফাতেমা বেগম, বায়েজিদ, জাকির নায়েব-২, জিহাদ, রুস্তম, সখিনা, জান্নাতুল ফেরদৌস, সিউলি, বেনু, জোৎস্না বেগম, লিমা, সাইদুর, বজলু, মাহমুদুল, আব্দুর রহমান, রিনা বেগম, নুরুল আমিন, লতিফ, চুন্নু, এমরান, খেলু, জাবেদা আক্তার, হারুন মিয়া ,জলিল, খাদেজা, রুবেল, তোরাব ও আবুল কালাম সহ অন্তত শতাধিক লোক হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া অন্তত ৩ জনকে মুর্মুষ অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করে কর্তব্যরত ডাক্তার।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই গ্রাম এলাকার বাসিন্দা জনৈক ছুরাব আলী নাকি প্রতিনিয়ত স্থানীয় বাজারে মাছ বিক্রি করেন। আর একই এলাকার বাসিন্দা নবীন মিয়া তিন দিন আগে নাকি ছুরাবের নিকট থেকে বাকীতে মাছ কেনেন। এদিকে গতকাল বুধবার সকালে ছুরাব তার পাওয়া টাকা নবীনের কাছে চাইলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এসময় উভয় পক্ষ অবস্থান নেয় কতিপয় লোক।

একপর্যায়ে এই দুই পক্ষের মধ্যে রাতে মৃদু সংর্ঘষের ঘটনাও ঘটে। এসময় আহত হয় মাছ বিক্রেতা ছুরাব সহ অন্তত ১৫ জন। এ ঘটনা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও মুরব্বিরা জানতে পেরে তা নিস্পত্তির উদ্যোগ নেয়ায় তখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। কিন্তু ফের বৃহস্পতিবার সকালে উভয় পক্ষ মারমুখী অবস্থান নেয়। একপর্যায়ে দুপুরে তুমুল সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে দু’পক্ষ। প্রায় দু’ঘন্টা ব্যাপী এই সংর্ঘষ চলাকালে উভয় পক্ষে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত নারী-শিশুরাও অংশ নেয়। এতে উভয় পক্ষের উল্লেখিত সংখ্যক নারী-পুরুষ আহত হয়।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে সদর থানা পুলিশ পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সংশ্লিষ্ট থানার ওসি মোঃ ইয়াসিনুল হক জানান, এ ঘটনায় অন্তত ৮ জনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি অবনতির আশংকায় ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষনে রেখেছে পুলিশ।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here