তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রমোট করতে কাজ করে যেতে চায় ইয়াং বাংলা ও মাইক্রোসফট

0
68
তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রমোট করতে কাজ করে যেতে চায় ইয়াং বাংলা ও মাইক্রোসফট
দেশের তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রমোট করতে কাজ করে যেতে চায় ইয়াং বাংলা ও মাইক্রোসফট। এর অংশ হিসেবে শুরু করা হয় মাইক্রোসফট-ইয়াং বাংলা ইন্টার্ন সামিট ২০১৮। চার দিনব্যাপী চলা এই ইন্টার্ন সামিটের শেষ দিন রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারস ইন্সটিটিউশনে ৬ অক্টোবর দেশের শীর্ষ পাঁচ স্টার্ট আপ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় সামিটে যোগ দেয়া ইন্টার্নদের। সেই সঙ্গে জানানো হয় বিজয়ী প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি ভালো আইডিয়া দেওয়া প্রতিটি দলকে ইয়াং বাংলার প্লাটফর্ম ব্যবহার করতে দেয়া হবে।
পুরষ্কার বিতরণের পূর্বে বলা হয়, বিজয়ী দলগুলোর পাশাপাশি এই সামিটে অংশ নেওয়া সকল দলকে নিয়ে কাজ করবে ইয়াং বাংলা। তাদের স্টার্ট আপ আইডিয়াগুলোর সঙ্গে অন্য মন্ত্রণালয়, এনজিও বা প্রতিষ্ঠানকে যুক্ত করে দেওয়ার জন্য ইয়াং বাংলা চেষ্টা করবে। তাই ইয়াং বাংলার সঙ্গে নিজেদের আইডিয়াগুলো নিয়ে যুক্ত থাকতে হবে। ইয়াং বাংলা সকল বিন্দুকে সংযুক্ত করবে।
সিআরআই ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক বলেন, ইয়াং বাংলার স্লোগান ‘কানেক্টিং দ্য ডটস’। তরুণদের লবিস্ট হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে ইয়াং বাংলা। বর্তমান প্রজন্মের চিন্তা ভাবনা ও আইডিয়ার সঙ্গে দেশের নীতি নির্ধারকদের সেতুবন্ধন তৈরির উদ্দেশ্যে কাজ করে যাবে প্রতিষ্ঠানটি।
তিনি আরো বলেন, আমরা যখন তরুণ ছিলাম, তখন মাইক্রোসফট ছিলো আমাদের কাছে বর্তমান সময়ের ফেসবুক- টুইটারের মতই জনপ্রিয়। ইয়াং বাংলার পাশে মাইক্রোসফটের নাম দেখে ভালো লাগছে। ইয়াং বাংলার মাধ্যমে দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষের সঙ্গে মাইক্রোসফটের মত একটি ব্রান্ডকে যুক্ত করতে পেরেছি আমরা।
এ সময় তিনি আরো বলেন, আমরা কাউকে পেছনে ফেলে যেতে চাই না। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সব সময় বলেন. ‘সবাইকে নিয়ে উন্নয়ন চাই, কাউকে পেছনে ফেলে যেতে চাই না।’
মাইক্রোসফটের কান্ট্রি ডিরেক্টর সোনিয়া বশির কবির এ সময় তাদের ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডরদের উদ্দেশ্য ঘোষণা দিয়ে জানান, আমাদের ৫০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা ১০০ ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর এখন মাইক্রোসফট ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়ে যাচ্ছেন। এ সময় তিনি দেশের ৭ জেলায় ইয়াং বাংলার সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত মাইক্রোসফটের ল্যাবগুলোর প্রশংসা করে বলেন, এই ল্যাবগুলোতে কাজ করে অনেকে স্বাবলম্বী হয়ে উঠছেন দেখে ভালো লাগছে। ল্যাবগুলো দুর্দান্ত কাজ করছে।
তরুণদের বৃহত্তম প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলার উদ্যোগে ও মাইক্রোসফটের সহায়তায় আয়োজিত ‘স্টার্ট আপ’ ইন্টার্ন সামিটে অংশ নিতে আবেদন করে ১ হাজারের বেশি উদ্যোক্তা। সারাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রেজিস্ট্রেশন করে ৩২৪টি গ্রুপ। এর থেকে বাছাইকৃত ২৫০টি গ্রুপ সামিটে অংশ গ্রহণের সুযোগ পায়। এই সামিটে অংশ নেয়া দলগুলোর মধ্য থেকে শীর্ষ ১০ দলকে বাছাই করা হয় ৫ অক্টোবর। এরপর তাদের সঙ্গে মার্চ মাসে সিলেক্ট করা শীর্ষ ১০ দল একত্রে তাদের আইডিয়া পিচ করে। এই ২ দলের মধ্য থেকে শীর্ষ ৫ দলকে প্রদান করা হয় অ্যাওয়ার্ড। বিজয়ী দলগুলো হলো- গরুর ডাক্তার, ফিনান্স উইজার্ড, ব্লেজ ওয়ারিয়ার্স, বিএসএল এবং মাইক্রো বিটস।
গরুর ডাক্তার দলের প্রধান নিজে একজন গবাদি পশুর চিকিৎসক। তার নিজ সমস্যাগুলোর সমাধানে এক ভিন্ন ধর্মী অ্যাপস তৈরির আইডিয়ায় নিয়ে কাজ শুরু করেন তিনি। সামিটে অংশ নেওয়ার পর নিজ আইডিয়াকে আরো পরিপূর্ণতা প্রদানের সুযোগ পান তিনি। একটি গবাদি পশুর অসুখ হলে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে কিভাবে পৌঁছাবে খামারি তাভেবে তৈরি করা হয়েছে তার স্টার্ট আপ।
নিজেদের মত তরুণ উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তার কথা মাথায় রেখে ফিনান্স উইজার্ড অ্যাপস তৈরি করেছেন। তাদের মূল লক্ষ্য, কোন আইডিয়া যেন অর্থের অভাবে নষ্ট হয়ে না যায়।
বৃদ্ধদের নিয়ে কাজ করতে চায় ব্লেজ ওয়ারিয়ার্স। যেই সকল বৃদ্ধ একাকী জীবন কাটাচ্ছে, হয়ত জীবিকার তাগিদে তাদের সন্তানরাও থাকতে পারছে না কাছে, তাদের জন্য বিশেষ সোশ্যাল মিডিয়া তৈরির পরিকল্পনা করেছে ব্লেজ ওয়ারির্স।
বাংলাদেশে ৩০ হাজারেরও বেশি বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের জন্য শিক্ষামূলক অ্যাপস বানাতে কাজ করে যাচ্ছে বিএসএল। বাংলাদেশের প্রান্তিক পর্যায়ে এই বাক ও শ্রবনহীন শিশুদের জন্য শিক্ষা উপকরণ ও স্কুল স্থাপন খরচের পাশাপাশি সময় সাপেক্ষ বিষয়। কিন্তু বাসায় থাকা অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করে তারা এখন থেকে শিক্ষা লাভ করবে এটাই বিএসএল-এর চাওয়া।
প্রকৃতিবান্ধব পণ্য উৎপাদন ও বণ্টন করতে চায় মাইক্রো বিটস। তাদের লক্ষ্য অপচনশীল দ্রব্য যেমন পলিথিনের বদলে পচনশীল প্যাকেজিং ব্যবস্থা এবং পণ্য সরবরাহের এমন এক প্রক্রিয়া তৈরি, যাতে প্রকৃতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।
ফাইনাল রাউন্ডে বিজয়ী গ্রুপগুলোর জন্য ব্যবসা শুরুর মূলধনের যোগান থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরণের সাপোর্টের ব্যবস্থা করবে মাইক্রোসফট ও ইয়াং বাংলা। দেশের সেরা পাঁচ স্টার্ট আপ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে ইয়াং বাংলা নেটওয়ার্ক।
image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here