ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বেচাকেনা ক্রমেই জমে উঠেছে চাটমোহরের ঈদ মার্কেটগুলোতে

0
24

পাবনা প্রতিনিধিঃপবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বেচাকেনা ক্রমেই জমে উঠেছে চাটমোহরের ঈদ মার্কেটগুলোতে। শহরের
সবক’টি বিপণিবিতানেই সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে কেনাকাটা। পছন্দের কাপড় কিনতে বিভিন্ন
বয়সী নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর আর তরুণ-তরুণীর পদচারণায় মুখর অভিজাত মার্কেটগুলো।
অপরদিকে নিস্ববিত্ত মানুষগুলো সাধ্যের মধ্যে পছন্দের কাপড় কিনতে ভিড় জমাচ্ছে হকার্স মার্কেটসহ
ফুটপাতের দোকাগুলোতে। ঈদে নতুন পোশাক না হলেই যেন নয়। তাইতো কেনাবেচায় জমে উঠেছে ঈদ বাজারগুলো।
শহরের অভিজাত জেএস মার্কেট, এআর প্লাজা, সরদার মার্কেট, মির্জা মার্কেট, হোসেন মার্কেট, রফিক
মার্কেট, মা আছিয়া মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটের বিপনী বিতানে এখন ক্রেতাদের উপচে ভীড়। পছন্দের
পোশাক কিনতে মার্কেটে মার্কেটে ঘুরে ফিরছেন বিভিন্ন বয়সী ক্রেতা।
এবারের ঈদ মার্কেটে থ্রিপিচ, সালোয়ার, লেহেঙ্গা কিনতে মাতোয়ারা তরুনীরা। বাচ্চাদের পছন্দ লাছ্ছা,
লেহেঙ্গা, লং ফ্রগ নামের নানা ধরনের পোশাক। আর ঘরবধূরা বেশি নিছেন দেশী তৈরী সুতির শাড়ী। এই গরমে
ঈদের আনন্দ যেন সারতে পারেন আমেজে, তাই যেন এসব ঘরবধূরা ঝুঁকছেন সুতি শাড়ির দিকে।
ভারতীয় কাপড়ের এবার তেমন কোন কদর নেই চাটমোহরের ঈদ বাজারে। গৃহিনীরা বেশি কিনছেন টাঙ্গাইল,
জামদানি, দেশী জামদানী, বেনারসি।
রেডিমেট কাপড়ের চাহিদা বেশী থাকলেও গজ কাপড়ও বিক্রি হচ্ছে বেশ। পাঞ্জাবী আর সেন্ডেলের দোকনেও
বেশ ভিড়। নতুন পোশাকে আর নতুন সেন্ডেল জুতা ছাড়া কি আর জমে ঈদ। এমনই কথা জানান ক্রেতারা।
ক্রেতারা জানালেন,অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার পোশাকের দাম অনেক বেশী। তার বেশী হলেও তো করার কিছু
নাই। ঈদ তো করতেই হবে। ঈদকে আরও মজার করে তুলতে পিতা-মাতার সাথে ঈদের বাজারে এসেছে শিশুরাও।
তারা মা-বাবাকে টানছে কসমেটিক্সের দোকানে। তাদেরও যে সাঁজতে হবে ঈদের দিনে।
ব্যবসাীরাও জানান, এবারের ঈদকে সামনে রেখে বেচা বিক্রি ক্রমেই জমে উঠেছে। দামও রয়েছে হাতের নাগালে।
সব রকমের দামের পোশাকই আছে যাতে কিনতে পারেন ক্রেতা। ঈদের বাজারে ব্যস্ততার যেনো শেষ নেই
বিক্রেতাদের। তারা অনেক ব্যস্ত। বললেন, ঈদ যতো কাছে আসছে ততোই বেড়ে যাচ্ছে বিক্রি ও খরিদ্দার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here