কোনো রোহিঙ্গা না খেয়ে মারা যাবে না : সেতুমন্ত্রী

0
68

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী বলেছেন, মিয়ানমার থেকে অনুপ্রবেশকারী যেসব রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে রয়েছেন, তারা কেউ না খেয়ে মারা যাবে না। এজন্য রোহিঙ্গা শিবিরে ৮টি লঙ্গরখানা ও ১২টি ত্রাণ বিতরণ কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

সোমবার সকালে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণবাহী গাড়ি চলাচলের সুবিধার্থে উখিয়া থেকে কুতুপালং যাওয়ার রাস্তা প্রশস্ত করার কাজ উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

রোহিঙ্গারা যাতে মূলস্রোতে মিশে যেতে না পারে সেজন্য সরকার সচেষ্ট রয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

শরণার্থীদের সাহায্যের জন্য প্রচুর গাড়ি আসছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যত দ্রুত সম্ভব রাস্তা প্রশস্ত করা হবে। এ সময় তিনি প্রতারকদের কাছ থেকে সতর্ক থাকার জন্য রোহিঙ্গাদের পরামর্শও দেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী বাসস্থান, চিকিৎসা, স্যানিটেশনসহ সব ধরনের মানবিক সহায়তা দেবে সরকার।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, একটি দল ও দালাল প্রকৃতির কিছু লোক রোহিঙ্গা শিবিরে বিশৃংখলা সৃষ্টি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। এদের মধ্যে অনেকেই আছেন নানা সুযোগ-সুবিধা আদায় করতে বসে আছেন আবার অনেকেই পত্র-পত্রিকায় বিবৃতিও দিচ্ছেন। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে তাদের এই অপচেষ্টা ব্যর্থ করা হবে।

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামিম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিদ রায় নন্দি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে ওবায়দুল কাদের উখিয়ার কুতুপালং ও বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণ করেছেন।

প্রসঙ্গত, জরুরি ভিত্তিতে উখিয়া থেকে কুতুপালং পর্যন্ত সড়ক প্রশস্তকরণ কাজের ব্যয়ভার ধরা হয়েছে ২ কোটি টাকা।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here