ভারী বর্ষণে বিপর্যস্ত রাজধানী ঢাকা

0
62

রাজধানীতে শুরু হয়েছে ভারী বর্ষণ। ভোর ছয়টা থেকেই আকাশে কালো মেঘ জমে। এরপর শুরু হয় মুষলধারে বৃষ্টি। প্রায় আড়াই ঘন্টার টানা বর্ষণে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে জলাবদ্ধতায় সৃষ্টি হয়েছে যানজট। যানজটে অফিসগামী মানুষ, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের গন্তব্যে যেতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

গতকাল সোমবার সকাল সোয় ৯টায় আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, রাজধানী ঢাকায় গতকাল সকাল ৬টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টায় ৬৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। রাজধানীর কোনো কোনো সড়কে হাঁটু পানি জমে গেছে। রাজধানীর মিরপুর, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ, কারওয়ান বাজার, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি ২৭, সোবহানবাগ, বসুন্ধরা সিটির পেছনে গার্ডেন রোড, পান্থপথ মোড় পার হয়ে গ্রিনরোডের কিছু জায়গা, পশ্চিম তেজতুরীপাড়া, ফকিরাপুল, খিলগাঁও, মতিঝিল, পল্টনসহ বেশির ভাগ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টিতে কারওয়ান বাজারের কাঁচাবাজার এলাকায় খেটে খাওয়া মানুষের চরম ভোগান্তি দেখা যায়। মাত্র আধঘণ্টা রাস্তায় প্রায় হাঁটু পানি উঠে যায়। সবজিসহ কাঁচা পণ্য নিয়ে বিপাকে পড়ে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। অনেক জায়গায় পানিতে ভাসতে দেখা যায় সবজি।

আবহাওয়া দফতর বলছে, মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। শুধু রাজধানীতে নয়, সারা দেশেই মৌসুমি বায়ু সক্রিয় রয়েছে। এদিকে সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে গতকাল সোমবার ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হয়েছে। আর ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে গতকাল দেশের পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। সোমবার সকালে আবহাওয়া অধিদফতরের এক পূর্বাভাসে বলা হয়, সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে এদিন সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী (৪৪ মিলিমিটার থেকে ৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতি ভারী (৮৯ মিলিমিটার বা তার বেশি ) বৃষ্টি হতে পারে।

পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির কারণে সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে। এদিকে সতর্কীকরণ কেন্দ্রের আরেক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ৫৫ মিমি বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে সোমবার সকাল ৭টা থেকে পরবর্তী ৬ ঘণ্টায় ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ সময়ে আকাশ মেঘলা থেকে মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে। এ সময় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। দক্ষিণ/দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ১০-১৫ কিলোমিটার গতিতে বাতাস বয়ে যেতে পারে। দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here