ইয়াবা সহ আটক একই পরিবারের ৪ জন

0
432
রাজধানীর পান্থপথের হোটেল ওলিও ড্রিম হ্যাভেন থেকে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত বাবা-মা ও দুই ছেলেসহ ছয়জনকে আটক করেছে র‌্যাব-২। আটককৃতদের কাছ থেকে ৮ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়। এ ছাড়া তাদের কাছ থেকে ইয়াবা বিক্রির অগ্রিম দুই লাখ ছয় হাজার ৬০০ টাকাও জব্দ করা হয়।
কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে অভিনব কায়দায় এই ইয়াবা ঢাকায় প্রবেশ করে এবং পরবর্তী সময়ে তা বিভিন্ন স্থানে পৌঁছানো হয়।
রোববার সকালে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-২ এর সিনিয়র এএসপি রবিউল।
র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার (স্পেশাল কোম্পানি) মেজর মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে শনিবার বিকালে তাদের আটক করা হয়।
আটক  ব্যক্তিরা হলো- বাবা আব্দুল আজিজ (৬৪), মা রিনা আক্তার (৫০), তাদের বড় ছেলে মো. সুমন, ছোট ছেলে মো. রতন (২৩), সহযোগী হোটেল ম্যানেজার এনামুল হক নয়ন (৩২) ও সারোয়ার কামাল (৩২)।
র‌্যাব সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম থেকে ইয়াবার একটি চালান কুরিয়ারের মাধ্যমে  ঢাকায় পাঠায়। এরপর মাদক ব্যবসায়ীরা চলে আসে ঢাকায়। একটি হোটেলে ওঠে তারা। সেখানে বসেই কুরিয়ারের কাছ থেকে ইয়াবার চালান ডেলিভারি নেয়। এরপর ইয়াবা বিক্রি করে টাকা নিয়ে ফের চট্টগ্রাম ফিরে যায় তারা। আর এই চক্রটির সঙ্গে জড়িত রয়েছে একই পরিবারের বাবা-মা, দুই ভাইসহ বেশ কয়েকজন।
মেজর মোহাম্মদ আলী বলেন, আমাদের কাছে চট্টগ্রাম থেকে কুরিয়ারের মাধ্যমে ইয়াবার বড় চালান আসার তথ্য ছিল। সেই তথ্যের ভিত্তিতে আমরা কুরিয়ার সার্ভিসের এখানে (অফিসে) অবস্থান নিই। কিন্তু দুটি চালান নিয়ে ব্যবসায়ীরা সেখান থেকে কৌশলে কেটে পড়ে। পরবর্তী সময় আমরা জানতে পারি, তারা এই চালান নিয়ে পান্থপথের হোটেল ওলিও ড্রিম হ্যাভেনে অবস্থান করছে।
তিনি বলেন, শনিবার বিকালে ওই হোটেলে অভিযান চালিয়ে ১০০৪ নম্বর কক্ষ থেকে পাঁচজন ও হোটেল ম্যানেজারকে আটক করি। এ সময় তাদের কাছ থেকে ইয়াবা বিক্রির অ্যাডভান্স দুই লাখ ছয় হাজার ৬০০ টাকা উদ্ধার করি। এর পর কুরিয়ার থেকে ইয়াবার আরেকটি চালান তাদের মাধ্যমে ডেলিভারি করিয়ে ৮ হাজার পিস ইয়াবা জব্দ করি।
মেজর মোহাম্মদ আলী বলেন, এদের মধ্যে বাবা-মা ও দুই ভাই রয়েছে। তারা প্রত্যেকে এই মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। অভিনব কায়দায় তারা মাদক চালান চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় এনে বিক্রি করে বলে উল্লেখ করেন এই র‌্যাব কর্মকর্তা।
তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রাম থেকে তারা দুটি প্যাকেটের একটিতে কাপড় ও অন্যটিতে ইয়াবা রেখে দুটোতেই কাপড় আছে বলে ঢাকায় কুরিয়ার করে। তারপর তারা সঙ্গে সঙ্গে ঢাকা রওনা হয়। ঢাকায় এসে হোটেল ওলিও ড্রিম হ্যাভেনে অবস্থান নেয়। সেখানে থেকে চালানের ডেলিভারি গ্রহণ করে। আর এই চালান পাঠানো হয় হোটেল ম্যানেজারের নামে। তার সহযোগিতায় হোটেলে অবস্থান করে ইয়াবা চালান নির্দিষ্ট ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করে আবার চট্টগ্রাম ফিরে যায় তারা।
আটক ব্যক্তিরা মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে উত্তরা থানায় মামলা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here