অবৈধ চাল মজুদকারীদের গ্রেফতারের নির্দেশ: বাণিজ্যমন্ত্রী

0
85

অবৈধভাবে চাল মজুদের অভিযোগে বাংলাদেশ রাইস মিল অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ এবং সাধারণ সম্পাদক লায়েক আলীকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

এছাড়া প্রত্যেক জেলায় যেসব গুদামে অবৈধভাবে চাল মজুদ রাখা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন মন্ত্রী।

রোববার সচিবালয়ে অটোমিল মালিক অ্যাসোসিয়েশন নেতাদের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এ সময় খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, বৈঠকে দেশের কোথায় এবং কোন কোন গুদামে চাল মজুদ আছে সে বিষয়টি জানতে চান বাণিজ্যমন্ত্রী।

এক পর্যায়ে বাংলাদেশ রাইস মিল অ্যাসেসিয়েশনের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক লায়েক আলীর বিরুদ্ধে অবৈধভাবে চাল মজুদ রাখার অভিযোগ উঠে আসে।

আব্দুর রশিদের বাড়ি কুষ্টিয়ায়। কুষ্টিয়া ও নওগাঁয় তার চালের মিল ও গুদাম আছে। সম্প্রতি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তার গুদামে অভিযান চালিয়ে অতিরিক্ত চাল মজুদের প্রমাণ পায়। এসময় তাকে জরিমানাও করা হয়।

বিষয়টি জানতে পেরে বাণিজ্যমন্ত্রী তাৎক্ষণিকভাবে কুষ্টিয়ার এডিসি ও নওগাঁর ডিসি এবং দুই জেলার এসপির সঙ্গে ফোনে কথা বলেন। রশিদকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, যেখানে যেখানে চালের গুদাম আছে সেখানে অভিযান চালানো হবে। অতিরিক্ত মজুদ রাখলে মিল মালিকদের তাৎক্ষণিক গ্রেফতার করা হবে।

গত দুই সপ্তাহের ব্যবধানে বস্তাপ্রতি চালের দাম বেড়েছে ৩০০ থেকে ৫০০। গত কয়েক মাস ধরেই এই অস্বাভাবিক বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলেও বর্তমানে তা অসহনীয় মাত্রায় পৌঁছেছে।

মোটা চালের বাজারদর ওঠা-নামা করছে পঞ্চাশের ঘরে। এর আগে এমন চড়া দরে চাল কিনতে হয়নি কখনোই। কোরবানী ঈদের আগে আর পরে মাত্র এ ক’দিনেই চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৮ থেকে ১০ টাকা।

বর্তমানে চাল ‍মজুদ করে রাখার কারণে সব জায়গায় বেড়েছে যেমন সংকট তেমনি মাত্রাতিরিক্ত মূল্যের দরুণ জনভোগান্তিরও কমতি নেই।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here