‘গোয়ালঘরে থাকা’ সেই মা মারা গেলেন

0
3

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলায় সন্তানদের অবহেলায় গোয়ালঘরে থাকা সেই মরিয়ম নেছা (৯০) মারা গেছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে বার্ধক্যজনিত রোগে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

ফুলবাড়িয়া উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার তেজপাটুলি গ্রামের মরিয়ম নেছা তিন ছেলের মা ছিলেন। ২০ বছর আগে তাঁর স্বামী মারা যান। স্বামী মারা যাওয়ার পর ছেলেরা মায়ের ভরণপোষণ দিতেন না। মানুষের বাড়িতে কাজ করে ও ভিক্ষাবৃত্তি করে তিনি জীবন ধারণ করতেন। বার্ধক্যজনিত রোগে বাড়ির বাইরে যাওয়ার ক্ষমতা হারিয়ে ফেললে সন্তানদের অবহেলায় তাঁর ঠাঁই হয়েছিল ছেলের গোয়ালঘরে। গোয়ালঘরে থাকা অবস্থায় গত মে মাসে এক রাতে শিয়ালে কামড় দেয় মরিয়ম নেছাকে। এ ঘটনাটি গত ২৮ মে প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয় ও পরে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

এরপর ফুলবাড়িয়া উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় সাংসদ মোসলেম উদ্দিন এবং জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ মরিয়ম নেছার সাহায্যে এগিয়ে আসেন। তাঁকে ভর্তি করা হয় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এ ঘটনায় দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি হয়। সন্তানেরা তাঁদের ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চান। চিকিৎসা শেষে আবারও ফিরে যান সন্তানদের কাছে। ফুলবাড়িয়া উপজেলা প্রশাসন মরিয়ম নেছার ভরণপোষণের ভার নিয়েছিল।

মৃত্যুর সময় মরিয়ম নেছা তাঁর মেজ ছেলে মারফত আলীর বাড়িতে ছিলেন। মারফত আলী প্রথম আলাকে বলেন, বৃহস্পতিবার ভোরে তাঁদের মা মারা যান। তিনি বলেন, ‘আমাদের ভুলের জন্য আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়েছি। মায়ের কাছেও অনেকবার ক্ষমা চেয়েছি। সবাই আমার ময়ের জন্য দোয়া করবেন।’

ফুলবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লীরা তরফদার বলেন, ‘বার্ধক্যজনিত রোগে মরিয়ম নেছা মারা গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে আমরা শোকাহত।’

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here