সহিংসতার পর ভার্জিনিয়ায় জরুরি অবস্থা

0
42

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যে জাতীয়তাবাদী শেতাঙ্গদের বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি সহিংস হয়ে ওঠায় সেখানে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

রোববার বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার ভার্জিনিয়ার শার্লটসভিলে জাতীয়বাতী শেতাঙ্গদের বিক্ষোভ সহিংস রূপ নিলে অঙ্গরাজ্যের গভর্নর টেরি ম্যাকঅলিফি জরুরি অবস্থা জারি করেন।

শেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের এই বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে এখন পর্যন্ত তিনজন নিহত হয়েছে। বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে বিরোধীদের সংঘর্ষ চলাকালে একটি গাড়ি ভিড়ের মধ্যে চালিয়ে দেওয়া হলে চাপা পড়ে এক নারী নিহত হয়। এছাড়া শার্লটসভিলের কাছে হেলিকপ্টার বিস্ফোরিত হয়ে নিহত হয়েছেন সহিংস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কর্মরত পুলিশের দুই সদস্য। যদিও হেলিকপ্টারটি ঠিক কী কারণে বিস্ফোরিত হয়েছে তা এখনও পরিষ্কার নয়। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

শার্লটসভিলের পুলিশ প্রধান আল থমাস জানান, ভার্জিনিয়ার পুলিশ জানায়, ভিড়ের মধ্যে একটি সেডান গাড়ি উঠিয়ে দেওয়ায় চাপা পড়ে ৩২ বছর বয়সী এক নারী নিহত হয়। আহত হয়ন আরও ১৯ জন, যাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তিনি আরও জানান, বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে আহত আরও ১৬ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে ভার্জিনিয়ার পুলিশ বিভাগ জানিয়েছে, শার্লটসভিলের কাছে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ জানতে তদন্ত চলছে।

এদিকে উগ্র ডানপন্থি শেতাঙ্গদের সমালোচনা না করায় নিজ দল রিপাবলিকান পার্টিতেই সমালোচনার মুখে পড়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অবশেষে সহিংতার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন।

এক টুইটে তিনি ‘নিহত দুই পুলিশ সদস্যের পরিবার ও তাদের সহকর্মীদের গভীর সমবেদনা’ জানিয়েছেন। পরে আরেক টুইটে ট্রাম্প গাড়ি চাপায় নিহত নারীর পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা এবং আহত সবার প্রতি শুভকামনা জানান।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here