সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে জনগণকে উস্কে দিচ্ছেন নওয়াজ

0
33

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের জেরে পদত্যাগের পর দুই সপ্তাহ কেটে গেল। আর এরই মধ্যে নীরবতা ভেঙে স্বমূর্তিতে আবির্ভূত হলেন পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। এবার সমর্থকদের আশ্বস্ত করার চেষ্টা করলেন, পাকিস্তানকে আবার জনগণের হাতে ফিরিয়ে আনবেন। হাজার গাড়ির বহর নিয়ে ঘরে ফেরার শোভাযাত্রা শুরুর পর এবার দেশটির সাধারণ জনগণকে আহ্বান জানালেন, তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে প্রস্তুত থাকতে। এদিকে এই শোভাযাত্রায় তার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা অভিজাত বাহিনীর গাড়িচাপা পড়ে ৯ বছর বয়সী এক শিশু প্রাণ হারিয়েছে। খবর ডন, দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ও দ্য ন্যাশনের।

নিজের জনপ্রিয়তা প্রমাণে বিশাল শোভাযাত্রা নিয়ে চার দিনের দীর্ঘ র‌্যালি গতকাল শনিবার লাহোরে গিয়ে শেষ হওয়ার কথা। লাহোরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরুর আগে এদিন গুজরানওয়ালাতেও নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন নওয়াজ। হাজার হাজার সমর্থকের উদ্দেশে তিনি বলেন, লাখ লাখ মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে, আর মাত্র হাতেগোনা কয়েকটি মানুষ আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। তিনি আরও বলেন, আমি চাচ্ছি না আপনারা আমাকে আবার ক্ষমতায় বসান। তবে আমি চাই, দেশের ভালোর জন্য আমাকে সমর্থন দিন। দেশের জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকারকে আবারও অসম্মান করা হয়েছে। এ ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে আন্দোলনের ডাক দিতে যাচ্ছি আমি। আপনারা প্রস্তুত থাকুন। আমি আসলে আপনাদের ভিতরকার আগুনকে উস্কে দিতে এসেছি।

দেশটির শাসনকাঠামোতে সেনা প্রভাব এবং বিচার ব্যবস্থারও তীব্র সমালোচনা করেন নওয়াজ। তিনি আবেগভরা কণ্ঠে বলতে থাকেন, পাকিস্তানকে আবারও জনগণের হাতে ফিরিয়ে দেব। আপনারা আশাহত হবেন না। এটা হবে আপনাদেরই জয়। আর পরাজয় হবে তাদের, যারা দেশটিকে ৭০ বছর ধরে জিম্মি করে রেখেছে। এ দেশের ২০ কোটি মানুষই দেশটির আসল মালিক। মাত্র কয়েকজন মিলে তাদের ওপর ডাণ্ডা ঘোরাতে পারবে না। পাকিস্তানের ২০ কোটি মানুষকে আবারও দেশের মালিকে পরিণত করব আমরা। নওয়াজ যদি দুর্নীতিতে যুক্ত থাকত, তাহলে আপনারাই আমাকে ক্ষমতা থেকে ছুড়ে ফেলতে পারতেন। আমার বিরুদ্ধে কোনো দুর্নীতির অভিযোগ নেই। তাহলে মুরিদকে জনগণ আপনারাই বলুন- সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত সঠিক কি-না? আমাদের কি এ সব অপচেষ্টা বন্ধে বিদ্রোহ করা উচিত নয়? আপনারা কি বিদ্রোহের জন্য প্রস্তুত?

সুপ্রিম কোর্টের এ ধরনের অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের কারণে বিশ্বমঞ্চে পাকিস্তানের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে বলেও মন্তব্য করেন নওয়াজ। তিনি বলেন, বিশ্ব এখন পাকিস্তানকে নিয়ে হাসছে। ইসলামাবাদ থেকে ৪০০ কিলোমিটারের বেশি দীর্ঘ পথ গ্রান্ড ট্রাঙ্ক রোড ধরে পাড়ি দেওয়ার সময় বিভিন্ন স্থানে সভা-সমাবেশ করেছেন আর পাকিস্তানের শাসন ব্যবস্থার সমালোচনা করছেন নওয়াজ। আগের দিন নওয়াজ শরিফ ঝিলম নদীর পাড়ে একটি হোটেলে রাত কাটান।

তবে নওয়াজের এই শোভাযাত্রার জন্য ক্ষতিও গুনতে হয়েছে লাহোরকে। বিভিন্ন রাস্তাঘাট, বাজার বন্ধ থাকায় দুই হাজার ৪শ’ কোটি রুপি লোকসান হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গত ২৮ জুলাই নওয়াজকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অযোগ্য ঘোষণা করেন পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট। এরপর তিনি পদত্যাগ করেন।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here