‘যেনোট্রান্সপ্লানটেশন’ পদ্ধতিতে মানুষের শরীরে প্রতিস্থাপন হবে শূকরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ

0
42

বর্তমানে মানুষের শরীরে প্রতিস্থাপনের জন্য প্রত্যঙ্গ পাওয়া কঠিন ও বিশ্বব্যাপী প্রত্যঙ্গের অভাব একটা বড় সঙ্কট। আর তাই শূকর ব্যবহার করে মানুষের প্রত্যঙ্গ প্রতিস্থাপনের এক পদ্ধতির ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা। তারা জানিয়েছেন, ‘শূকরের জিনে এমন কিছু পরিবর্তন করতে পেরেছেন, যাতে শূকরের দেহের অংশ থেকে কোনো রোগ মানবদেহে ছড়াতে পারবে না।

গবেষকরা বলছেন জিনের পরিবর্তন ঘটিয়ে ৩৭টি শূকরের দেহ তারা ২৫ ধরনের ভাইরাস থেকে মুক্ত করেন, যার ফলে তাদের মধ্যে সংক্রমণের আশংকা দূর হয়ে যায়। এরপর ক্লোনিং প্রযুক্তির মাধ্যমে ভাইরাসমুক্ত শূকরের শাবক তৈরি করা হয়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, গবেষণায় এই অগ্রগতির ফলে মানুষের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ পাওয়া না গেলে বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে শূকরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য ব্যবহার করা যাবে।

পশুর দেহের অংশ মানুষের শরীরে প্রতিস্থাপনের এই পদ্ধতি যাকে ‘যেনোট্রান্সপ্লানটেশন’ বলা হয়, তাতে সাফল্য অর্জনের জন্য বিজ্ঞানীরা গত বিশ বছর ধরে চেষ্টা চালিয়ে আসছিলেন। মানুষ ও শূকরের কোষ একসঙ্গে মিশলে শূকরের দেহের ভাইরাস মানুষের শরীরে সঞ্চালিত হতে পারে। এখন এই গবেষণার ফলাফল সেই আশংকা দূর করার পথে বড় একটা অগ্রগতি বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন।

তবে তারা বলেছেন এখনও এই গবেষণা প্রাথমিক পর্যায়ে আছে এবং মানুষের শরীরে শূকরের প্রত্যঙ্গ প্রতিস্থাপন করলে মানুষের শরীরে তা কোনো ধরনের জটিলতা সৃষ্টি করবে কী না, সে বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত হতে আরও গবেষণার প্রয়োজন।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here