অপহৃতদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিন | ৬ দিনে ৩ অপহরণ

0
64

ছয় দিনে যে তিনজন অপহৃত হলেন তাঁদের মধ্যে দুজন ব্যবসায়ী, একজন ব্যাংকার। ২২ আগস্ট বিমানবন্দর সড়কে গাড়ি থামিয়ে ব্যবসায়ী সাদাত হোসেনকে জোর করে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি এবিএন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য। চট্টগ্রামের রাউজান থেকে তিনি সংসদ নির্বাচনে আগ্রহী ছিলেন।

২৩ আগস্ট ব্যাংকার শামীম আহমেদ অপহৃত হয়েছেন একটি রেস্তোরাঁ থেকে দুপুরের খাবার খেয়ে বের হওয়ার পর। যাঁরা তাঁকে টেনেহিঁচড়ে মাইক্রোবাসে তুলেছেন, তাঁরাও একই রেস্তোরাঁয় খেয়েছেন।

আর ২৭ আগস্ট ব্যাংক থেকে বের হওয়ার পর জোর করে মাইক্রোবাসে তোলা হয়েছে আরেক ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়কে। সরকারদলীয় একজন সাংসদের সঙ্গে তাঁর ব্যবসায়িক বিরোধের কথা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। শেষের দুটি ঘটনার ভিডিও ফুটেজ পুলিশের কাছে রয়েছে। মানে কারা ঘটনা ঘটিয়েছেন, তার প্রমাণ রয়েছে। এরপরও কূলকিনারা হয় না কেন?

এই পরিবার তিনটি কেন মুখ খুলতে চায় না, তা আমরা অনুমান করতে পারি। তাদের লক্ষ্য অপহরণের শিকার লোকটিকে যেকোনো মূল্যে ফিরিয়ে আনা। অতীতে সৌভাগ্যক্রমে যাঁরা ফিরে এসেছেন, তাঁরা আর মুখ খোলেননি।

যে ঘটনা দুটির সিসি ক্যামেরার ফুটেজ রয়েছে, তাঁদের চিহ্নিত করা কঠিন কাজ নয়। গণমাধ্যমে তাঁদের চেহারা প্রকাশ করে, তাঁদের ধরিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে সাহায্য চাওয়া যেতে পারে। কিন্তু এটি হবে কি না সে বিষয়ে যথেষ্ট সংশয় আছে। কারণ, পুলিশ সূত্র বলছে, ‘যাঁরা অপহরণ করেছেন, তাঁরা সম্ভবত ‘আমাদের নাগালের বাইরের লোক’। তারা এও স্বীকার করেছে, অপহরণের ধরন দেখে মনে হয়েছে, তাঁরা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত লোক।

পুলিশ যদি মনে করে যে যাঁরা ধরে নিয়ে গেছেন, তাঁরা নাগালের বাইরে, তাহলে দেশে আইনের শাসন বলে কিছু অবশিষ্ট থাকে না। এরপরও আমাদের আশা, পুলিশ এই অপহৃত তিনজনকে উদ্ধার করে তাঁদের পরিবারের হাতে ফিরিয়ে দেবে।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here