খালেদার গাড়িবহরে হামলা

0
69

আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতি যে দিনে দিনে অধিকতর অসহিষ্ণু ও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে, তার প্রমাণ গত শনিবার বিএনপির প্রধান খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলা। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে তাঁর গাড়িবহর যথাক্রমে ফেনীর ফতেহপুর, দোবীপুর ও বিসিক সড়কের মাথায় এবং চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে হামলার শিকার হয়। এটি ছিল অত্যন্ত পরিকল্পিত ও সংঘবদ্ধ হামলা। আমরা এই হামলার নিন্দা জানাই এবং অপরাধীদের শাস্তি দাবি করছি।
এই হামলায় গণমাধ্যমের ৮টিসহ ১৫-২০টি গাড়ি ভাঙচুর ও ৫০ জনের মতো মানুষ আহত হওয়ার ঘটনা যারপরনাই উদ্বেগজনক। বিএনপি নেতারা বলেছেন, আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা হামলা করেছেন। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের কোনো কোনো নেতা ঘটনাকে বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দলের পরিণতি বলে দাবি করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে প্রকাশ্যে এবং হামলাকারীদের ছবিও বেসরকারি টিভি চ্যানেল ও পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। অতএব, হামলা নিয়ে বাদানুবাদ না করে নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে হামলাকারীদের খুঁজে বের করা হোক। সে ক্ষেত্রে পরিষ্কার হয়ে যাবে তাঁরা কোন দলের কর্মী–সমর্থক।
পুলিশের মহাপরিদর্শক বলেছেন, বিএনপিপ্রধানের নিরাপত্তার বিষয়ে পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে এবং তিনি নিরাপদে চট্টগ্রাম (তখন পর্যন্ত কক্সবাজার পৌঁছাননি) পৌঁছেছেন। এখানে প্রশ্ন হলো বিএনপিপ্রধান নিরাপদে কক্সবাজার গেলেও তাঁর সহযাত্রী ও গণমাধ্যমের গাড়িতে কারা আক্রমণ চালাল? কারা প্রকাশ্যে লাঠিসোঁটা ও আগ্নেয়াস্ত্রের মহড়া দিল এবং প্রায় অর্ধশত মানুষকে আহত করল? সড়কপথে বিএনপি নেত্রীর ত্রাণ দিতে যাওয়া নিয়েও ক্ষমতাসীন দলের কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন। এ ব্যাপারে আমাদের পরিষ্কার বক্তব্য হলো কে কোন পথ দিয়ে যাবেন, সেটি ঠিক করার দায়িত্ব ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের নয়। বরং তাঁরা যদি নিজ দলের বেপরোয়া কর্মীদের দিকে নজর দিতেন তাহলে দলেরও মঙ্গল, দেশেরও কল্যাণ হতো।
আমরা বিস্ময়ের সঙ্গে লক্ষ করেছি, অতীতেও সাবেক প্রধানমন্ত্রীসহ রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা প্রতিপক্ষের কর্মী-সমর্থকদের দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন। শেখ হাসিনার আমলে খালেদা জিয়ার কিংবা খালেদা জিয়ার আমলে শেখ হাসিনার গাড়িবহর হামলার শিকার হবে—রাজনীতির নামে এই সন্ত্রাসী তৎপরতার অবসান হওয়া প্রয়োজন। যাঁরা রাজনৈতিক পরিচয়ে এই ঘৃণ্য কাজ করেছেন, তাঁদের পাকড়াও করে শাস্তি দেওয়া জরুরি। একই সঙ্গে রাজনৈতিক নেতৃত্বকে এই নিশ্চয়তা দিতে হবে যে ভবিষ্যতে এ ধরনের হামলা হবে না।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here