বৃহস্পতিবার মহাঅষ্টমী, অনুষ্ঠিত হবে কুমারী পূজা

0
94

দুর্গা দেবীর নবপত্রিকা প্রবেশ স্থাপন সপ্তম্যাদি কল্পারম্ভের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে সপ্তমী পূজা। বৃহস্পতিবার মহাঅষ্টমী। এ দিনের প্রধান আকর্ষণ কুমারী পূজা।

বুধবার সকাল ৯টা ৫৮ মিনিটের আগে নবপত্রিকা প্রবেশ, স্থাপন, সপ্তয্যাদি কল্পারম্ভ এর মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে মহাসপ্তমী। এ উপলক্ষে বিভিন্ন মণ্ডপে দুস্থদের মধ্যে বস্ত্র ও খাদ্য বিতরণ করা হয়।

সকাল থেকেই পুণ্যার্থীরা বিভিন্ন মণ্ডপে অঞ্জলি নেয়ার জন্য ভিড় করতে থাকেন। রাতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আরতি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৫৮ মিনিটের মধ্যে দুর্গাদেবীর মহাষ্টম্যাদি বিহিত পূজা হবে। দুপুরে মহাপ্রসাদ বিতরণ এবং সন্ধ্যা ৭টা ৩৫ মিনিট থেকে রাত ৮টা ৬ মিনিটের মধ্যে সন্ধিপূজা করা হবে।

এদিকে মহাঅষ্টমীর মূল আকর্ষণ কুমারী পূজা। ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশনসহ কয়েকটি স্থানে কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশনের স্থিরাত্মানন্দ মহারাজ (নিরঞ্জন মহারাজ) জানান, মহাষ্টমীর দিন সকাল ১১টায় কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, যে জগৎমাতাকে (দেবী দুর্গা) আমরা আরাধনা করি তিনি সব নারীর মধ্যে মাতৃরূপে আছেন। এ উপলব্ধি সবার মধ্যে জাগ্রত করার জন্যই কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

দুর্গা মাতৃভাবের প্রতীক আর কুমারী নারীর প্রতীক। কুমারীর মধ্যে মাতৃভাব প্রতিষ্ঠাই এ পূজার মূল লক্ষ্য, বলেন স্থিরাত্মানন্দ মহারাজ।

কুমারী পূজার আনুষ্ঠানিকতা সম্পর্কে তিনি বলেন, দেবী দুর্গার সামনে বসিয়ে ঠিক যেভাবে তার (দুর্গার) আরাধনা করা হয়, একইভাবে কুমারীকে সে সম্মান দেয়া হয়। শুধু মাটির প্রতিমা নয়, নারীর মধ্যেও মাতৃভাব আনা হয়।

বিশুদ্ধ স্বভাবের গুণাবলি দেখে একজন নারীকে কুমারী হিসেবে নির্বাচিত করা হয় উল্লেখ করে মহারাজ বলেন, পূজার আগ পর্যন্ত কুমারীর পরিচয় গোপন রাখা হয়।

এ ছাড়াও নির্বাচিত কুমারী পরবর্তী সময়ে স্বাভাবিক জীবনযাপন আচার-অনুষ্ঠান করতে পারে বলে তিনি জানান।

এবার সারা দেশে ৩০ হাজার ৭৭টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ২৯ হাজার ৩৯৫টি।

রাজধানীতে এবার পূজা হচ্ছে ২৩১টি, গত বছর এই সংখ্যা ছিল ২২৯টি। এ বছর দুটি বেড়েছে।

সবচাইতে বেশি পূজা হচ্ছে চট্টগ্রামে, ১ হাজার ৭৬৭টি। এর পরে দিনাজপুরে ১ হাজার ২৪২। আর গোপালগঞ্জে হচ্ছে ১ হাজার ১৭৫টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here