শক্তিশালী দল মাঠে নামবে : ব্রাজিল

0
387
রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত হয়ে গেছে অনেক আগেই। দুই খেলা বাকি থাকতে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে দ্বিতীয় স্থানধারী উরুগুয়ের চেয়ে পরিষ্কার ১০ পয়েন্টে এগিয়ে আছে তারা। তারপরও বলিভিয়া এবং চিলির বিপক্ষে শক্তিশালী দলই নামনোর ইঙ্গিত দিচ্ছেন কোচ তিতে।
বাংলাদেশ সময় আগামীকাল বৃহস্পতিবার রাতে বলিভিয়ার মুখোমুখি হবে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তার আগে গতকাল সোমবার তেরেসোপোলিসে অনুশীলন সেরে নিয়েছেন নেইমাররা। পিএসজি তারকা ছাড়াও উত্ফুল্লভাবে অনুশীলন করেছেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস, পলিনহো, উইলিয়ান, দিয়েগো সিলভা, দানি আলভেজের মতো তারকারা।
ফর্ম বিবেচনায় নেইমারদের দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। ১৬ খেলায় মাত্র একটি ম্যাচ হেরেছে তারা। তিতের দলের যেখানে ৩৭ পয়েন্ট সেখানে সমান সংখ্যক খেলায় মাত্র ১৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের নিচের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে বলিভিয়া। খেলাটা বিশ্বের উচ্চতম স্টেডিয়াম লাপাজে হওয়ায় সচরাচর যেমনটি হয়, তেমনি নেইমারদের বড় বাধা হবে উচ্চতা।
অনুশীলনে নেইমার পায়ের আঙ্গুলে সামান্য চোট পেলেও সেটা কাটিয়ে উঠেছেন। তাই পুরোপুরি ফিট হয়েই মাঠে নামছেন পিএসজি তারকা। বাছাইপর্বের শেষ খেলায় কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন চিলির মুখোমুখি হবে ব্রাজিল।
বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটা আনুষ্ঠানিকতার হলেও চিলির ম্যাচে জটিল হিসেব-নিকেশ রয়েছে। যদিও সেটা শুধু অ্যালেক্সিস সানচেজদেরই। ব্রাজিলের সমান ১৬ খেলায় ৭ হারে পরের বছর তাদের বিশ্বকাপ খেলাই অনিশ্চিয়তার মধ্যে পড়ে গেছে। ২৩ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের ষষ্ঠ অবস্থানে আছে দলটি। পঞ্চম অবস্থানে থাকা আর্জেন্টিনার চেয়ে এক পয়েন্ট কম আর্তুরো ভিদালদের। চিলির কপালে চিন্তার ভাঁজ কারণ শেষ খেলায় সেলেচাওদের মাঠে এসে খেলতে হবে তাদের। চতুর্থ স্থানে থাকা পেরুরও পয়েন্ট ২৪। ২৬ ও ২৭ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে তৃতীয় ও দ্বিতীয় অবস্থানে আছে কলম্বিয়া ও উরুগুয়ে। তাই প্রত্যেকের শেষ দু’টি খেলায়ই মূলত নির্ধারিত হতে যাচ্ছে রাশিয়া বিশ্বকাপে মূলপর্বে খেলার ভাগ্য।
দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে চারটি দল সরাসরি বিশ্বকাপের টিকিট পাবে। বাকি দলটিকে ওশেনিয়া অঞ্চলের বিজয়ী দলের সঙ্গে প্লেঅফ খেলে রাশিয়া যেতে হবে। তাই নির্ধারিত নয় আর্জেন্টিনার ভাগ্যও। শেষ দু’টি খেলায় মেসিদের প্রতিপক্ষ পেরু এবং ইকুয়েডর। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর রাতে নিজেদের মাঠে পেরুকে আতিথ্য দিবে কোচ জর্জ সাম্পাওলির দল। শেষ খেলায় অষ্টম অবস্থানে থাকা ইকুয়েডরের মাঠে খেলবে তারা। কোনোরকম হোঁচট খেলে ১৯৭০ সালের পর প্রথমবারের মতো আর্জেন্টিনাবিহীন বিশ্বকাপের শঙ্কা থেকেই যায়।
তথ্যসূত্র : ডেইলি মেইল
image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here