এশিয়া-ধাঁধা বাংলাদেশ সফরেই কাটবে ওয়ার্নারের?

0
80

রেকর্ড বইয়ের অনেক অধ্যায়েই খুঁজে পাওয়া যাবে তাঁর নাম। একমাত্র অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার, প্রথম শ্রেণির কোনো ম্যাচ না খেলেই অস্ট্রেলিয়া দলে ডাক পেয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। টেস্টে লাঞ্চের আগে সেঞ্চুরি করেছেন পাঁচজন ব্যাটসম্যান। সংক্ষিপ্ত এই তালিকায় আছেন ওয়ার্নারও। গত বছর জিতেছেন অ্যালেন বোর্ডার পদক। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট গড়টাও তাঁর ঈর্ষণীয়, ৬০.১১!

দেশের মাঠে ওয়ার্নারের রেকর্ড-পরিসংখ্যান যতটা উজ্জ্বল, এশিয়ার মাটিতে ততই বিবর্ণ। এশিয়ায় এলেই কেন যেন খেই হারিয়ে ফেলেন বাঁহাতি ওপেনার। ২৫ ইনিংসে ব্যাটিং গড় ৩০.৬৮, যেটি ওয়ার্নার-সুলভ নয় মোটেই। ফেব্রুয়ারি-মার্চে ভারতের মাটিতে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে তাঁর সর্বোচ্চ ইনিংস ৫৬, যেটি আবার ধর্মশালায় সিরিজ–নির্ধারণী টেস্টে। এশিয়ায় রান না পাওয়া এই ওপেনারের ওপর তবুও আস্থা রাখছেন অস্ট্রেলিয়া কোচ ড্যারেন লেম্যান, ‘আমার মনে হয়, সে কী করতে পারে বা পারে না, তা ভালো বুঝতে পেরেছে। আমি আশাবাদী, এশিয়ায় সে আরও ভালো করবে।’
প্রথম ইনিংসে বড় রান গড়ার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছেন লেম্যান। উপমহাদেশে গত দশকে যে একটি টেস্ট জিতেছে অস্ট্রেলিয়া (ভারতের বিপক্ষে), সেটি মরা উইকেটে প্রথম ইনিংসে ৪৫০-এর বেশি রান করে। বাংলাদেশে একই উইকেট থাকতে পারে—এ ধারণায় লেম্যান মনে করছেন, প্রথম ইনিংসে বড় স্কোরের বিকল্প নেই।
পরিসংখ্যানও তা–ই বলে। সফরকারী দল হিসেবে বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান (২০১৫ সালের মে মাসে)। সেবার খুলনায় সিরিজের প্রথম টেস্টে পাকিস্তান প্রথম ইনিংসে করেছে ৬২৮। তামিম ইকবালের দুর্দান্ত এক ডাবল সেঞ্চুরিতে ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত ড্র। ঢাকা টেস্টে প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান ৮ উইকেটে ৫৫৭ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে। টেস্টটা পাকিস্তান জেতে ৩২৮ রানে।
অস্ট্রেলিয়া ভালোই জানে, এবার বাংলাদেশকে হারাতে হলে প্রথম ইনিংসে মুশফিকদের কাঁধে চাপিয়ে দিতে হবে রানের বোঝা। আর সেটি করতে হলে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে ওয়ার্নারকেই। লেম্যান চান, আক্রমণাত্মক নয় বরং ধীর লয়ে ইনিংস শুরু করুন তাঁর টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। এ ফর্মুলাতেই ভারতের বিপক্ষে গত ফেব্রুয়ারি-মার্চে তিন সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন স্মিথ।

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here