বাংলাদেশে অভিষেকে মুখিয়ে সোয়েপসন

0
64

মিচেল সোয়েপসন প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন মাত্র ১৪টি। অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দলের বিবেচনায় এ অভিজ্ঞতা সামান্যই। কিন্তু গত সপ্তাহে টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পাওয়ার পর থেকেই ‘ব্যাগি গ্রিন’ ক্যাপের জন রীতিমতো প্রহর গুনছেন তিনি। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ দিয়েই টেস্ট অভিষেকের স্বপ্ন দেখছেন ২৩ বছর বয়সী এ লেগ স্পিনার।
বাংলাদেশ সফর সামনে রেখে ডারউইনে প্রস্তুতি-ক্যাম্প করছে অস্ট্রেলিয়া। সেখানে গণমাধ্যমের কাছে টেস্ট অভিষেক নিয়ে নিজের আশাবাদ জানিয়েছেন সোয়েপসন, ‘আমি সব সময়ই আশাবাদী। আমাকে দেরিতে স্কোয়াডে ডাকায় অনেকেই ভাবছেন, এই মুহূর্তে বাকি দু’জন (লায়ন ও অ্যাগার) আমার চেয়ে এগিয়ে। কিন্তু যে কোনো কিছুই ঘটতে পারে। আমাকে শুধু খেলার জন্য তৈরি থাকতে হবে। তবে সুযোগ না পেলেও সমস্যা নেই। তবে অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগটা লুফে নিতে চাই। ’
অস্ট্রেলিয়ার ১৪ সদস্যের স্কোয়াডে সোয়েপসন সর্বশেষ সংযোজন। রয়েছেন আরও দুজন স্পিনার—নাথান লায়ন ও অ্যাশটন অ্যাগার। ৬৭ টেস্ট খেলা লায়ন ইতিমধ্যেই অস্ট্রেলিয়ার সেরা অফ স্পিনার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বাঁ হাতি স্পিনার অ্যাগারের ঝুলিতে মাত্র ২ টেস্টের অভিজ্ঞতা থাকলেও এ ফরম্যাটে তার অভিষেক চার বছর আগে। তা ছাড়াও টেস্টে একটি হাফ সেঞ্চুরি ছাড়াও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২ সেঞ্চুরি ও ৮ হাফ সেঞ্চুরি আছে তাঁর। অন্যদিকে ১৪টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ৪৮.৬ স্ট্রাইক রেটে ৪১ উইকেট নিয়েছেন সোয়েপসন।
ব্যাটিংয়ে ততটা ভালো না হলেও, সোয়েপসনের সঙ্গে রয়েছে শেন ওয়ার্নের প্রশংসাপত্র। কারণটা অবশ্যই বল টার্ন করানোর জন্য। ওয়ার্নের মতোই নাকি বল ঘোরাতে পারেন তিনি।গত মার্চে ওয়ার্নের পরামর্শেই ভারত সফরে সোয়েপসনকে টেস্ট স্কোয়াডে রেখেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার নির্বাচকেরা। কিন্তু সেবার অভিষেকের সুযোগ হয়নি কুইন্সল্যান্ডের এই ক্রিকেটারের। এবার বাংলাদেশের মাটিতে টেস্ট অভিষেকের স্বপ্ন দেখা সোয়েপসন মনে করেন, তিনি টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পেয়েছেন তৃতীয় স্পিনার হিসেবে। যদিও অস্ট্রেলীয় গণমাধ্যমের মতে, বাংলাদেশ সফরে লায়নের সঙ্গে স্পিন জুটি বাঁধার ক্ষেত্রে জোর লড়াই হবে অ্যাগার ও সোয়েপসনের মধ্যে।
কুইন্সল্যান্ডের বয়সভিত্তিক দল থেকে উঠে এসেছেন সোয়েপসন। ভারত সফরে দলের সঙ্গে থেকে উপমহাদেশের কন্ডিশন সমন্ধে বেশ ভালো ধারণা পেয়েছেন তিনি, ‘ভারতে দলের সঙ্গে থেকে কিছু ব্যাপার শিখেছি। টেস্টে খেলোয়াড়দের মানসিকতা দেখেছি। গত ছয় মাস ছিল আমার জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ, এ সময় বোলিং নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করেছি। এবার মৌসুম শুরুর আগে বোলিং নিয়ে আমি সন্তুষ্ট এবং তার পেছনে ছিল ভারত সফরের অভিজ্ঞতা। ’
বাংলাদেশ সফরে টেস্ট অভিষেকের সুযোগ পেলে সোয়েপসন যে ভারত সফরের সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগাবেন, তা বলাই বাহুল্য। দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে আগামী ১৮ আগস্ট বাংলাদেশে আসবে অস্ট্রেলিয়া দল। সূত্র: রয়টার্স, দ্য ওয়েস্ট অস্ট্রেলিয়ান

image_pdfimage_printPrint

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here